নীলফামারীতে সেইফ ফাউন্ডেশনের ব্যতিক্রমি মেহমানখানা॥ অতিথি শ্রমজীবি মানুষরা

ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়,নীলফামারী ৩ আগষ্ট॥
খাবারের মেনুতে পোলাও-মাংস, ডিম, ডাল, মিষ্টি ও কোমল পানীয়। অতিথিরা এলেন এবং দুপুরের খাবার খেলেন তৃপ্তিভরে। শুধু খাবার খেয়েই তৃপ্ত নয়, তারা মুগ্ধ হলেন আয়োজকদের অতিথিতার আন্তরিকতায়। 
ওই আয়োজনের যারা অতিথি ঈদের দিনে তাদের ভাগ্যে জোটেনি ভালো খাবার। দিনটিতে সকলে আনন্দ করলেও তারা রয়েই গেছেন অতৃপ্ত।
ঈদের তৃতীয় দিন সোমবার(৩ আগষ্ট/২০২০) দুপুর হতে বিকাল পর্যন্ত নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়ামে সেইফ ফাউন্ডেশন নামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা এসব মানুষের জন্য মেহমানখানার আয়োজনে করলেন ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি। ওই আয়োজনের প্রথম দিনের অতিথি ছিলেন ৬০০ জন। তিন দিনব্যাপী তাদের ওই মেহমানখানায় অতিথি হবেন দুই হাজার ৪০০ জন। এসব অতিথি সকলেই নিম্ন আয়ের। রয়েছেন ছিন্নমূলসহ এতিম সন্তানরা। রয়েছেন রিক্সাচালকসহ অন্যান্য শ্রমজীবি মানুষ। 
ওই মেহমানখানায় আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন করোনা কালে ক্ষুদ্র ব্যবসা হারিয়ে বেকার হয়ে পড়া জেলা শহরের শাহিপাড়ার নজরুল ইসলাম (৬০)। তিনি এসেছিলেন তার আদরের সাত বছর বয়সের নাতিকে নিয়ে। খোনে খাবার খেয়ে তিনি বলেন, ঈদের দিনে ভালো খাবার জোটেনি। নাতিটাকেও খাওয়াতে পারিনি। তাই নাতিটাকে নিয়ে আসলাম। অনেক দিন পর তৃপ্তি সহকারে ভালো খাবার খেলাম।  
জেলা শহরের রিক্সাচালক মনছুর আলম (৩২) বলেন, করোনা দূর্যোগের পর থেকে খুব দূর্দিন যাচ্ছে আমাদের। এসময়ে ভালো খাবারতো দুরের কথা সাধারণ খাওয়াও পাইনি পেটপুড়ে। আজকে খেয়ে অনেক দিনের ভালো কিছু খাওয়ার সাধ পূরণ হলো। 
একই কথা বলেন সেখানে আগত শুকুর আলী (৪৫), বদরুল ইসলাম (৫৫), কামাল হেসেনসহ (৩৫) অনেকে। তারা সকলে ঈদে ভালো খাওয়া জোটাতে না পেরে ঈদ আনন্দ থেকে ছিলেন অতৃপ্ত।
সেইফ ফাউন্ডেশনের প্রধান সম্বয়কারী রাসেল আমীন স্বপন বলেন,“ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে করতে আমাদের ওই আয়োজন। তিন দিনের আয়োজনে দুপুরের খাবার খাবেন দুই হাজার ৪০০ অতিথি। আর আমাদের আমন্ত্রিত অতিথি রিক্সাচালক, ভ্যানচালক, এতিম, ছিন্নমূল মানুষসহ নিম্ন আয়ের মানুষ। তালিকা তৈরী করে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে তাদেরকে। আমন্ত্রিত অতিথি সাথে নিয়ে আসতে পারবেন পরিবারের একজনকে। ৫ আগস্ট দুপুরের খাবারের পর সমাপ্ত হবে আমাদের ওই মেহমানখানা। 
উল্লেখ্য, করোনা দূর্যোগকালে ওই সংগঠনটির আত্মপ্রকাশ ঘটে। এরপর থেকে মানুষের মাঝে স্বাস্থ সচেতনতা সৃষ্টি, ৪০ হাজার নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, গত রমজান মাসজুড়ে ইফতারী বিতরণ, ঈদের জামা-কাপড় বিতরণ, বন্যার্তদের সহযোগিতা, বৃক্ষরোপণ, বইপড়াসহ বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে আসছে সংগঠনটি। ঈদের আগে ৫৪১ অস্বচ্ছল পরিবারে প্রদান করা হয়েছে মাংস, চাল, আটাসহ রান্নার অন্যান্য উপকরণ। তাদের এসব কাজে সহযোগিতা করছেন নীলফামারী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর, নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদসহ বিভিন্ন স্বচ্ছল ও মানুষের সেবায় আত্মনিয়োগে সচেষ্ট ব্যক্তি। # 

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 3788210504583032349

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item