নীলফামারীতে মানব পাচার মামলায় এক দম্পত্তির ছয় বছরের সাজা


ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়,নীলফামারী॥
নীলফামারীতে এক নারীকে পাচারের মামলায় আলতাফ হোসেন (৬৬) ও তার স্ত্রী নাজমা বেগমের (৫৬) ছয় বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা হয়েছে। আজ বুধবার(১১ নভেম্বর/২০২০) দুপুরে জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালত-১ এর দায়রা জজ মো. তারেক আহসান ওই দন্ডাদেশ প্রদান করেন। 

সাজাপ্রাপ্তরা রংপুর জেলা শহরের পায়রাচত্তর পুলিশ ফাড়ি মোড় এলাকার বাসিন্দা। আসামীরা পলাতক থাকায় তাদের অনুপস্থিতিতে ওই রায় প্রদান করা হয়।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ মতে, নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার পূর্ব বালাগ্রামের মৃত মতিয়ার রহমানের বিধবা মেয়ে ছাবিতন বেওয়াকে (২৫) পূর্ব পরিচয়ের সূত্রধরে ২০০৯ সালের ১১ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০ টার দিকে নিজ বাসার গৃহকর্মী হিসেবে  রংপুর শহরের বাসায় নিয়ে যায় আলতাফ হোসেন ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম। এর একমাস পর ছাবিতনের বড় ভাই জাহেদুল ইসলাম ওই বাড়িতে গিয়ে বোনের দেখা পাননি। এসময় আলতাফ এবং নাজমা তাকে (জাহেদুল) জানায় যে,“ছাবিতন আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গেছে।” এভাবে বার বার গিয়ে বোনের দেখা না পেয়ে জাহেদুল ইসলাম ওই বছরের ১ জুন বোনকে পাচারের অভিযোগ এনে আদালতে মামলা দায়ের করেন। 

সরকারী পক্ষের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর(পিপি) রমেন্দ্র নাথ বর্ধন বাপ্পী বলেন, দীর্ঘ শুনানীর পর মানব পাচারের বিষয়টি সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক আলতাফ হোসেন ও নাজমা বেগম দম্পত্তিকে ছয় বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশ প্রদান করেন। পলাতক থাকায় ওই দম্পত্তির অনুপস্থিতিতে রায় প্রদান করা হয়। #


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 6900868012594692019

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item