পাগলাপীরে সড়কের সলিং কাজ উদ্বোধন

হাবিবুর রহমান সেলিম, পাগলাপীরঃ
রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর হরিদেবপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের গোকুলপুর চওড়াপাড়ায় দুলালের বাড়ির সামন হতে ভুলুর বাড়ির সামন পর্যন্ত ৪৭৫ ফিট সড়কের সলিং কাজ উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার ২৮শে জুন সকাল সাড়ে ১০টায় সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মোছাঃ নাছিমা জামান ববি হরিদেবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন উক্ত সড়কের সলিং কাজ শুভ উদ্বোধন করেন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রোকনুজ্জামান আকবর, সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য রঞ্জিনা আক্তার আদুরী, আওয়ামীলীগ সদর উপজেলার কার্য নির্বাহী কমিটির সম্মানিত সদস্য বিশিষ্ট্য শিক্ষানুরাগী কাজল মিয়া, পাগলাপীর শাহী জামে মসজিদের সভাপতি একরামুল হক, পাগলাপীর বাস স্ট্যান্ড উপ-কমিটির সম্পাদক ও জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্পাদক রহিদুল ইসলাম অহেদুল, পাগলাপীর প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও আহ্বায়ক হাবিুবর রহমান সেলিম, উক্ত সড়কের সলিং কাজ বাস্তবায়কারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স এস.বি কন্সট্রাকশন মিঠাপুকুর, রংপুর এর প্রোপাইটর শাহিনসহ স্থানীয় সুধীবৃন্দ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে অত্র হরিদেবপুর ইউনিয়নের সুযোগ্য চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন বলেন,“ ৭নং ওয়ার্ডের সর্বশেষ বাজেট সভায় আমি অঙ্গীকার করেছিলাম আগামী জুন  মাসের মধ্যে দু’টি সড়কের সলিং কাজ করা হলে ৭নং ওয়ার্ডের শতভাগ সড়ক পাঁকাকরণ করা হবে। সেই অঙ্গীকার অনুযায়ী দুলালের বাড়ীর সামন হতে ভুলুর বাড়ীর সামন পর্যন্ত সড়কটির সলিং এর কাজ উদ্বোধন করা হলো এবং খুব শিঘ্রই এই ওয়ার্ডের মন্ডলপাড়ার মোকছেদ সরকারের বাড়ীর সামন হতে ফজলুল করীম মাদ্রাসা পর্যন্ত সড়কটি সলিং এর কাজ শুরু হবে। তবে এসবকিছু সম্ভব হয়েছে সদর উপজেলার চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববি’র আন্তরিকতা ও সার্বিক সহযোগিতার কারণে।” প্রধান অতিথির বক্তব্যে  সদর উপজেলার চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববি বলেন, হরিদেবপুর ইউনিয়নের সুযোগ্য চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন  একজন অক্রান্ত পরিশ্রমি মানুষ। তার পিতা মরহুম বদিউজ্জামান জামাল সদর উপজেলা পরিষদের প্রথম নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি যেমন উন্নয়নের রূপকার ছিলেন, ঠিক তেমনি তারই পুত্র ইকবাল হোসেন হরিদেবপুর ইউনিয়নের রূপকার। তবে সবকিছু সম্ভব হয়েছে  মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতার কারণে। ইতিপূর্বে হরিদেবপুর ইউনিয়ন পরিষদের অনেকে চেয়ারম্যান ছিলেন। তাদের আমলেও অনেক বরাদ্দ এসেছিলো। মন মানসিকতা ও আন্তরিকতার অভাবে পারেননি ইউনিয়নের সাধারন জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে। কিন্তু সেটা ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন রাস্তা-ঘাট, হাট-বাজার সরকারের দেওয়া বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে তিনি  ইউনিয়নের জনগণকে কাঁদামুক্ত করেছেন। স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা, মসজিদ-মন্দিরসহ ধর্মীয় নানা উপাসনালয়গুলোতে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। এছাড়াও ইউনিয়নের বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে, গুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্ট্রিট সোলার লাইট স্থাপন করে চুরি-ছিন্নাই-রাহাজানি বন্ধ করে হরিদেবপুর ইউনিয়নকে আলোকিত করে তুলেছেন। তাই আমি আশা করি আগামী হরিদেবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যোগ্য ব্যক্তিকে নির্বাচিত করতে আপনারা ভুলবেন না। কেননা, আপনাদের পবিত্র ভোটে আগামী দিনের হরিদেবপুর ইউনিয়নের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।” পরিশেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনায় এক বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।  

পুরোনো সংবাদ

রংপুর 1887674659171804342

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item