জলঢাকায় ব্র্যাকের এক নারী কর্মী অপহরন


নির্ণয়,নীলফামারী॥
ব্র্যাকের (বাংলাদেশ রুরাল অ্যাডভান্সমেন্ট কমিটি) এক নারী কর্মীকে অপহরনের অভিযোগ উঠেছে। আজ সোমবার(৭ জুন/২০২১) সকাল ৯টার দিকে নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার পেট্রোলপাম্প এলাকা থেকে ওই নারীকে অপহরন করা হয়। অপহৃতা নারী জলঢাকা ব্র্যাক অফিসের কর্মসুচি সংগঠক মনিরা সুলতানা(৩৩)। এ ঘটনায় ওই নারীর স্বামী সেলিম রেজা বাদী হয়ে জলঢাকা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই নারী আজ সোমবার সকালে উপজেলা ব্র্যাক অফিস থেকে বের হয়ে অফিসের কাজে একটি চার্জার ভ্যানে গ্রামের দিকে যাচ্ছিলেন। ভ্যানটি পেট্রোল পাম্প এলাকা অতিক্রম করার সময় একটি মাইক্রোবাস এসে ভ্যানটি থামিয়ে ওই নারীকে জোড়পূর্বক অপহরণ করে । ভ্যান চালক ওই ব্র্যাক কর্মী নারীকে রক্ষা করার চেষ্টা করলে অপহরনকারীরা তাকে কিলঘুষি মেরে মাটিতে ফেলে দিয়ে ওই নারীকে অপহরন করে নিয়ে যায়। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে তোলপাড় সৃস্টি করে।

জলঢাকা উপজেলা ব্র্যাক অফিসের ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলাম বলেন, মনিরা সুলতানা কর্মসুচি সংগঠক হিসাবে চলতি বছরের ৮ এপ্রিল এখানে যোগদান করেন। এর আগে তিনি কুড়িগ্রামের উলিপুরে কর্মরত ছিলেন। তার স্বামী সেলিম রেজা নীলফামারী সদরের কাজিরহাট ব্র্যাক অফিসের কর্মসুচি সংগঠক হিসাবে কর্মরত। 

মনিরা সুলতানার স্বামী সেলিম রেজা সাংবাদিকদের জানান, তার স্ত্রী অপহরনের ঘটনায় তিনি জলঢাকা থানায় বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। 

জলঢাকা থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমরা বিভিন্নস্থানে অভিযান পরিচালনা করছি। আশা করি অপহরনকারীদের শনাক্ত সহ অপহৃতাকে উদ্ধার করতে সক্ষম হবো।

এদিকে একটি নির্ভরযোগ্য সুত্র জানায় ব্র্যাক অফিসের কর্মসুচি সংগঠক মনিরা সুলতানার প্রথম স্বামী কুড়িগ্রামের মোর্শেদুর রহমান। গত বছরের নবেম্বর মাসে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। এরপর চলতি বছরের ২১ ফেব্রুয়ারী মনিরা সুলতানের সাথে বিয়ে হয় সেলিম রেজার। মনিরা সুলতানা দ্বিতীয় বিয়ের পর তার প্রথম স্বামী তাকে বিভিন্নভাবে হুমকী দিয়ে আসছিল। গত রোজার ঈদে মনিরা সুলতানা তার দ্বিতীয় স্বামী সেলিম রেজার  গ্রামের বাড়ি বগুড়ার শিবগঞ্জে ঈদ করতে যায়।সেখানে প্রথম স্বামী মোর্শেদুর, মনিরাকে অপহরনের চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় শিবগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেছিল মনিরা । অনেকে ধারনা করছেন প্রথম স্বামী হয়তো মনিরাকে জলঢাকা থেকে অপহরন করতে পারে।পুলিশের একটি সুত্র জানায় আমরা এই বিষয়টি মাথায় নিয়ে অভিযান পরিচালনা করছি। #


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 8766872036868416921

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item