ডোমারে মাদক সম্রাজ্ঞী রুপা আবারো শ্রীঘরে।


আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>

নীলফামারীর ডোমারে মাদক সম্রাজ্ঞী সাহিদা বেগম রুপা (৩৫) আবারো শ্রীঘরে।

মামলা সুত্রে জানা যায়, গত ১৯ সেপ্টেম্বর রাতে ডোমার থানার একদল পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযান চলাকালীন সময়ে বোড়াগাড়ী এলাকায় টহল দেয়। এ সময় চিহিৃত মাদক কারবারী পূর্ব বোড়াগাড়ী এলাকার গোলাম রাব্বানির ছেলে নয়নকে আটক করে। তল্লাসী চালিয়ে তার কাছ থেকে ২ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসা বাদে উপস্থিত লোক জনের সামনে নয়ন জানান, ফেন্সিডিলগুলো ডোমার পৌর এলাকার ছোট রাউতা কাজীপাড় গ্রামের মিজানুর রহমানের স্ত্রী মাদক সম্রাজ্ঞী সাহিদা বেগম রুপার কাছ থেকে ক্রয় করে বিক্রির উদ্দেশ্যে। পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে নয়নকে সাথে নিয়ে রুপার বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় রুপা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে যায়। পরদিন রুপা বিজ্ঞ আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। বিজ্ঞ আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেয়। অপরদিকে ডোমার থানার এসআই সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে নয়ন ও রুপার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে ১৯ এর (১) টেবিলে ১৪/ক ধারায় মামলা নং- ১১, তারিখ- ২০/০৯/২০২০ইং দায়ের করে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, রুপার বাড়িতে অভিযান কালে রুপার মেয়ে মনি আক্তার (১৪) পুলিশকে হুমকি দিয়ে বলে, আমার মা জেল থেকে বেরিয়ে আসার পর পুলিশের বিরুদ্ধে যা ব্যবস্থা নেয়ার দরকার তারা নেবে। ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমার জানান, নয়ন বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারত্তিমূলক জবান বন্দি প্রদান করেন। ডোমার থানায় রুপার নামে ২০টি, তার স্বামী মিজানের নামে ১৪টি ও নয়নের নামে ৩টি মাদক মামলা রয়েছে। তারা এলাকার চিহিৃত ও কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। 


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 3747412788755830923

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item