প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে নীলফামারীতে এমপি নূরের বিশেষ সহায়তা প্রদান


ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়,নীলফামারী॥ নীলফামারী জেলা সদরের চিনিমোড় গ্রামের অসহায় নারী পাঁপড়ী রানী রায়, ও শহরের সওদাপাড়া পাঁপড়ি বেগম দুইজনই পেল নীলফামারী সদর আসনের সংসদ সদস্য সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর এর পক্ষ পেলো- আধাপাকা বসতঘর।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনে নুর এপির কাছে বসতঘর পেয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন তারা। শুধু এই দুই নারী নয় তাদের সঙ্গে আরো ২০ জন অসহায় পরিবারকেও বিশেষভাবে সহায়তা করা হয়েছে।
আজ সোমবার(২৮ সেপ্টেম্বর/২০২০) বেলা ১১টায় স্থানীয় শিল্পকলা একাডেমীতে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে আনুষ্ঠানিকভাবে এই সহায়তা প্রদান করা হয়। দুই নারী তাদের বসতঘরের চাবি নিয়ে সেই ঘরে উঠে সৃস্টিকর্তার কাছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আসাদুজ্জামান নুরের জন্য প্রাণভরে দোয়া ও ভক্তি করেছেন।
সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে অনলাইন ভার্চুয়ালে অংশ নিয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নীলফামারী সদর আসনের সংসদ সদস্য সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

অনুষ্ঠানের দোকান ঘর ও ঘর নির্মান বাবদ তিন জনকে নগদ ৩০ হাজার টাকা, চিকিৎসা সহায়তা বাবদ আট জনকে ৭৯ হাজার টাকা, দোকান ঘর নির্মানের জন্য দুই জনকে দুই বান ঢেউটিন, দুইজন প্রতিবন্ধীকে দুটি হুইল চেয়ার এবং ক্রীড়া উপকরণ ক্রয় বাবদ দুই জনকে নগদ ১০ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়। এছাড়াও জোরদরগাহ হাফিজিয়া মাদ্রাসার ৩৫ জন কোরআন হাফেজের মাঝে খাবার, গাছের চারা, মাস্ক, সাবান ও ছাতা বিতরণ করা হয়।

আসাদুজ্জামান নুর এমপি তার বক্তব্যে বলেন, আমাদের সকলের প্রাণপ্রিয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী মাদার অব হিউমিনিটি আধুনিক বাংলার রূপকর শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিনে আমি আমার নির্বাচিত এলাকার অসহায় মানুষজনের সহায়তা প্রদান করে দিনটি পালন করছি। কেক কাটা বা দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে জন্মদিন পালন করার বাহিরেও ভালো কাজ বা মানুষের পাশে থাকার উদ্যোগ নেয়া যায়।
নুর আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছেন তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধু গরীব দুঃখি মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চেয়েছিলেন সেটি নিবেদিত হয়ে দিনরাত কাজ করছেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী। যার সুফল আমরা সবাই ভোগ করছি। নুর বলেন চতুর্থবারের মত দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। তাঁর নেতৃত্বে অর্থনীতির প্রতিটি সূচকে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে একটি রোল মডেল হিসেবে পরিচিত করেছেন। সন্ত্রাস ও জঙ্গি দমনেও তিনি বিশ্বনেতাদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। মিয়ানমারে জাতিগত সহিংসতায় পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দিয়ে সারা বিশ্বে হয়েছেন প্রশংসিত। বাংলাদেশকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। এছাড়াও, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্থায়ী অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, খাদ্যে স্বনির্ভরতা, নারীর মতায়ন, কৃষি, শিা, স্বাস্থ্য, গ্রামীণ অবকাঠামো, যোগাযোগ, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ, বাণিজ্য, আইসিটি এবং এসএমই খাতে এসেছে ব্যাপক সাফল্য। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ, বঙ্গবন্ধুর আতœস্বীকৃত খুনিদের বিচার, পার্বত্য চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক শান্তি চুক্তি স¤পাদন, একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতিসহ জাতীয় জীবনের বহুেেত্র অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বে করোনাকালেও দেশের প্রবৃদ্ধি এশিয়ায় প্রায় সবদেশের ওপরে। গত সাড়ে ৬ মাস বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা একদিনের জন্যও বসে থাকেননি, প্রতিদিনই কাজ করছেন। করোনা মোকাবেলায় তাঁর বলিষ্ট নেতৃত্বে এই মহামারিকে নিয়ন্ত্রন এবং অর্থনীতির চাকা সচল রাখা গেছে।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুজার রহমানের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মমতাজুল হক ও পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি মসফিকুল ইসলাম রিন্টু। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান।

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 8355213503895672282

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item