ডোমারে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>
নীলফামারীর ডোমারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ।
ঘটনাটি উপজেলা জোড়াবাড়ী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড ভাষানী পাড়া গ্রামে। জানা যায়, উক্ত গ্রামের আনারুল ইসলামের স্কুল পড়ুয়া কন্যা মিরজাগঞ্জ দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবম শ্রেনীর ছাত্রী জেসমিন আক্তার (১৬)। তার সাথে মিরজাগঞ্জ এলাকার জিয়ারুল ইসলামের ছেলে রুবেল ইসলাম (১৮)’র বিয়ের দিন তারিখ ঠিক হয় সোমবার (২৯ জুন) রাতে। ওই দিন বিকালে এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শাহিনা শবনমকে বিয়ের বিষয়টি জানায়। নির্বাহী কর্মকর্তা তাৎক্ষনিক ভাবে ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মফিজুল ইসলাম ও গ্রাম পুলিশকে বাল্য বিয়ে বন্ধের নির্দেশ দেন। ইউপি সদস্য ও গ্রাম পুলিশ বরের বাড়িতে গিয়ে তার বাবা ও মাকে করোনা পরিস্থিতি ও বাল্য বিয়ে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ বিষয়ে বুঝিয়ে ২জন গ্রাম পুলিশের পাহারায় বিয়ে বন্ধ করে দেয়। ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ হওয়ায় সাধুবাদ জানান এলাকার সচেতন মহল। 

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 5410398011212472316

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item