দারিদ্রতার সাথে যুদ্ধ করে বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়ন করছে পার্বতীপুরের মেধাবী রিতা

এম এ আলম বাবলু, পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
দার্রিতার সাথে যুদ্ধ করে বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়ণ করছে পার্র্বতীপুরের ভ্যান চালকের মেধাবী কন্যা রিতা। লেখাপড়া শিখে সে পরিবারের দারিদ্রতা ঘোচানো সহ দেশ ও জাতীর সেবা করতে চায়। দেখিয়ে দিতে চায় প্রবল ইচ্ছা শক্তি থাকলে কোনো কিছুই বাধা নয়। দিনাজপুরের পার্বতীপুরের হত দরিদ্র পরিবারের মেধাবী কন্যা রিতা শত দুঃখ কষ্টের মধ্যেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়ন করছে। দরিদ্র পিতা-মাতার মেধাবী এই কন্যা সকল বাধাকে উপেক্ষা করে নিজ লক্ষে পৌছানোর ইচ্ছা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে চলছে। ইচ্ছা শক্তি মানুষকে যে কতটা সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে তার উদকৃষ্ট উদাহরন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রী রিতা। দিন দরিদ্র পরিবারের মেধাবী সন্তান রিতা আক্তার।
অভাব-অনাটন আর চরম দারিদ্রতাই যার শিক্ষা জীবনের অন্তরায়। কিন্তু প্রচন্ড ইচ্ছে শক্তির বলেই সব বাধাকে উপেক্ষা করে আজ সে বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়ন করছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব ও খনি বিদ্যা বিভাগের অনার্স চতুর্থ বর্ষের মেধাবী ছাত্রী রিতা দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার হলদীবাড়ী কলোনী এলাকার দরিদ্র ভ্যান চালক আবু বক্কর সিদ্দিক বাবু ও বুলবুলি বেগমের একমাত্র কন্যা। সে ২০১৩ সালে এসএসসি'তে জিপিএ-৫ ও ২০১৫ সালে এইসএসসি'তে জিপিএ-৫ পেয়েছে। মেধাবী এই ছাত্রী অনেক কষ্টে তার লেখা পড়া চালিয়ে যাচ্ছে। তার ইচ্ছে সে বিসিএস এর মাধ্যমে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হয়ে দেশ ও জাতীর সেবা করবে এবং ঘোচাবে তার পরিবারের দরিদ্রতা।  তার এই ইচ্ছে বাস্তবে পরিনত হোক এ জন্য সে সবার দোয়া প্রার্থনা করেছে।

পুরোনো সংবাদ

শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন 1896017243317092246

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item