গৃহকর্মী আর্জিনাকে রংপুর মেডিকেলে স্থানান্তরিত , মামলা না করার জন্য প্রভাবশালীর হুমকী

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
নির্যাতনের শিকার তেরো বছরের  শিশু গৃহকর্মী আর্জিনাকে মঙ্গলবার বিকালে উন্নত চিৎিসার জন্য নীলফামারীর  ডিমলা  হাসপাতাল হতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সেখানে সার্জারী বিভাগের ১৬ নম্বর ওয়াডে তাকে ভর্তি করা হয়। সঙ্গে রয়েছে আর্জিনার মা আনজুয়ারা ও বাবা আনছার আলী, খালা মঞ্জুয়ারা ও নিকট আত্বীয় দবির উদ্দিন। এদিকে এ ঘটনায় এখনও মামলা করতে পারেনি পরিবারটি।

অভিযোগ উঠেছে একটি প্রভাবশালী মহল দুই লাখ টাকার বিনিময়ে  ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে উঠে পড়ে লেগেছে। মহলটি আর্জিনাকে নির্যাতনকারী বাসার মালিক টাঙ্গাইলের শহরের বিশ্বাস বেতকা মহল্লার শিবনাথ পাড়ার আমির আলীর ছেলে তাজুল ইসলামের নিকট ইতোমধ্যে এক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। অথচ বিষয়টির কিছুই জানে না আর্জিনার বাবা মা।

এ প্রসঙ্গে আর্জিনার মা জানায় ডিমলার এক প্রভাবশালী তাদের মামলা না করার জন্য হুমকী দিয়ে বলেছে মেয়েকে চিকিৎসা করে সুস্থ্য করে তুলো। তারপর চিকিৎসার খরচের টাকা দেয়া হবে। তবে কোন মামলা করা চলবে না।  আর্জিনার মা আরো বলেন আমার মেয়েকে সুস্থ্য করে তুলে টাঙ্গাইলে গিয়ে মামলা দায়ের করবো। এ জন্য তাদের আইনী সহায়তা দিতে চেয়েছেন ঢাকার আইন ও সালিশ কেন্দ্রের আইনজীবী শিল্পী সাহা। 
এদিকে সংবাদ সংবাদ প্রকাশের পর নির্যাতিত শিশু গৃহকর্মী আর্জিনাকে চিকিৎসা সহায়তার জন্য ২০ হাজার টাকা দিয়েছেন লন্ডন প্রবাসী মাদারিপুরের আব্দুল জলিল। মঙ্গলবার লন্ডন হতে ওই টাকা রূপালী ব্যাংক ডিমলা শাখার মাধ্যমে তিনি প্রেরন করেন। ওই ব্যাংকের ব্যবস্থাপক আবু সাঈদ চৌধুরী সকালে উক্ত ২০ হাজার টাকা আর্জিনার মায়ের হাতে তুলে দেন বলে জানান। আব্দুল জলিল জানায় চিকিৎসার যত টাকা লাগবে তিনি তা ব্যয় করবেন। পাশাপাশি তাদের আইননী সহায়তার কথাও বলেন তিনি।

এদিকে ঢাকার আইন ও সালিশ কেন্দ্রের আইনজীবী শিল্পী সাহা  ঢাকা হতে  মোবাইল ফোনে   বলেন, নির্যাতনের শিকার মেয়েটিকে টাঙ্গাইল আদালতে গিয়ে মামলা করতে সকল খরচ আইন ও সালিশ কেন্দ্র বহন করবে।

ডিমলা থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, যেহেতু মেয়েটি নির্যাতনের শিকার হয়েছেন টাঙ্গাইলে। সেহেতু এ সংক্রান্ত মামলা  টাঙ্গাইল সদর থানা বা  আদালতে করতে হবে।
ডিমলা হাসপাতালে মেডিকেল অফিসার ডাঃ ইয়াসমিন ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, শিশু মেয়েটি যথাসাধ্য চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে  উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

উল্লেখ যে শিশু গৃহকর্মী আর্জিনা গত রবিবার দুপুরে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছিল। সে নীলফামারীর ডিমলার সঙ্গে লাগানো তিস্তা নদীর ওপারে লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার আরাজি শেখ সিন্ধু গ্রামের  আনছার আলী ও মা আনজু বেগমের মেয়ে।

সে গত ৭ বছর ধরে টাঙ্গাইল জেলা শহরের পৌর এলাকার ১৭ নম্বর ওয়াডের বিশ্বাস বেতকা মহল্লার শিবনাথ পাড়ার আমির আলীর ছেলে তাজুল ইসলামের বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করতো। মেয়েটিতে ওই বাড়িতে কাজের জন্য নিয়ে গিয়ে দেয় ডিমলার সুঠিবাড়ির শাহিনুর নামের এক ব্যাক্তি।
অভিযোগ গৃহকর্মীর কাজ করতে গিয়ে ওই বাড়ির গৃহকর্তার স্ত্রী আমেনা বেগম ও তাদের মেয়ে লাভলী আক্তারের নিষ্ঠ’র বর্বরতা নির্যাতনের শিকার হয় আর্জিনা। গত শনিবার রাতে আর্জিনাকে তার দাদা নুরু মিয়া টাঙ্গাইল হতে অসুস্থ্য অবস্থায়  নিয়ে আসে। এরপর এলাকাবাসীর সহায়তায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।#

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 4365466427036025193

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item