তিস্তা বিপদসীমার ১৩ সেন্টি উপরে

বিশেষ প্রতিনিধি ॥
উজান থেকে তিস্তায় ভয়াবহ ঢল ধেয়ে আসতে শুরু করেছে। ভারতীয় অংশের তিস্তায় ইতোমধ্যে রেড এ্যালার্ট জারী করা হয়েছে। শনিবার বিকাল ৬টা থেকে বাংলাদেশ অংশের ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার প্রবাহ ছিল বিপদসীমার ৫ সেন্টিমিটার উপরে। যা পানি বৃদ্ধি অব্যাহত ছিল। তিন ঘন্টার ব্যাবধানে রাত ৯টায় বিশেষ ব্যবস্থায় পানি উন্নয়ন বোড তিস্তার পানি প্রবাহ পেয়েছে বিপদসীমার ১৩ সেন্টিমিটার  উপরে। যা আরো বৃদ্ধি পায় ৮ সেন্টিমিটার।
সেই সাথে তিস্তার উথাল পাথাল ঢেউ আর শোঁ শোঁ শব্দ তিস্তাপাড়কে কাঁপিয়ে তুলছিল। তিস্তাপাড়ের চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে আতঙ্ক। নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা  ও লালমনিরহাট জেলা হাতিবান্ধা ও কালিগঞ্জ উপজেলার তিস্তার চর ও চর গ্রামে বসবাসরত মানুষজনকে নিরাপদে সরে যেতে বলেছে জনপ্রতিনিধিরা।
ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোডের বন্যা পূর্বাভাস ও  সর্তকীকরন কেন্দ্র সুত্র জানায়  শনিবার সকাল ৬টায়  ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমার (৫২ দশমিক ৪০ মিটার) ১৮ সেন্টিমিটার নিচে থাকলেও ১২ ঘন্টার ব্যবধানে  সন্ধ্যা ৬টায় তা বিপদসীমার ৫ সেন্টিমিটার উপরে চলে যায়। রাত ৯টায় সেটি আরো বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ১৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।
সুত্র মতে ধারনা করা হচ্ছে উজানের ভারী বৃস্টিপাত ও গজলডোবার জলকপাট খুলে দেয়ায় তিস্তার প্রবাহ  দুর্বার গতিতে বাংলাদেশে ধেয়ে আসছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে বাংলাদেশের ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তা ব্যারাজের সবকটি (৪৪টি) জলকপাট খুলে রাখা হয়েছে বলে জানালেন ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজার রহমান। তিনি জানান কি পরিমান উজানের ঢল আসছে তা মনিটরিং করা হচ্ছে। সেই সাথে তিস্তা ব্যারাজ ও ফ্লাড ফিউজ এলাকায় নজরদারিতে রাখা হয়েছে।
সুত্র মতে ভারতের জলপাইগুড়ি,কুচবিহার এলাকার বাংলাদেশ অংশে প্রবেশদার মেখলিগঞ্জ পর্যন্ত তিস্তা অববহিকায়  রেড এ্যালার্ট জারী করেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।
  ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানায়, উপজেলার  তিস্তা নদীর সংলগ্ন ৭টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 2692908320973539867

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item