নীলফামারীতে জরিমানা পরে পেলেন খাদ্য সহায়তা


নির্ণয়,নীলফামারী॥
দোকানের অর্ধেক খোলা রেখে ব্যবসায়িক কার্যক্রম চালানোর অপরাধে নীলফামারীতে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা করা হয় এক ব্যবসায়ীর। এ সময় হাউমাউ করে কেঁদে উঠেন মোমিন নামের এই ব্যবসায়ী। এ সময় তার পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন নাহার কিন্তু তার অনুনয় বিনয় এবং আকুতির কারণে জরিমানা কমিয়ে করা হয় এক হাজার টাকা। 

জরিমানার টাকা পরিশোধ করলেও খাদ্য সংকটের কথা প্রকাশ করায় তার পাশে দাঁড়ান ইউএনও জেসমিন নাহার। তাকে দশ কেজি চাল, ডাল, লবন, তেল, সাবান, চিনি, গুড়ো দুধ প্রভৃতি দেয়া হয় পরক্ষণে। 

আজ শনিবার(২৪ জুলাই/২০২১) দুপুরে জেলা শহরের সবুজপাড়া এলাকায় অভিযান চালানোর সময় মিথিলা থাই এলুমিনিয়াম গ্লাস হাউস খোলা থাকায় সেখানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন ইউএনও। ব্যবসায়ীক এই প্রতিষ্ঠানটির মালিক আবির আলীর ছেলে মোমেনকে প্রথমে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করলেও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান দিপক চক্রবর্তি ও ব্যবসায়ীর আকুতিতে জরিমানা কমিয়ে আনা হয় এক হাজার টাকায়। তাৎক্ষনিক ভাবে জরিমানার টাকা পরিশোধ করলেও অভাব অনটন এবং খাদ্য সংকটের কথা বিশেষ দৃষ্টিতে নেন ইউএনও। 

ইউএনও জেসমিন নাহার বলেন, জরিমানার টাকা পরিশোধ করেন তিনি কিন্তু ঘটনাস্থলে নিজের কষ্টের কথা উপস্থাপন করেন। এ সময় মানবিক কারণে তার পাশে দাড়াই। তবে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা কালে স্থানীয়রা পরোক্ষ ভাবে হুমকী দিয়েছেন। এটি জেলা প্রশাসক স্যারকে জানিয়েছি। # 


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 6578898625910678436

অনুসরণ করুন

Logo

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item