সৈয়দপুরে কামারপুকুর ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষের স্ত্রী মুক্তি দাসের পরলোকগমন




তোফাজ্জল হোসেন লুতু,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:

নীলফামারীর সৈয়দপুরে কামারপুকুর ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অরুণ কুমার দাসের স্ত্রী মুক্তি রাণী দাস পরলোকগমন করেছেন। শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) সকালে সৈয়দপুর শহরের পুরাতন বাবুপাড়াস্থ নিজ বাসভবনে ডায়াবেটিস্ রোগের হাইফোজনিত (সুগারনীল) কারণে ইহলোক ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫০বছর। তিনি স্বামী ও এক মাত্র মেয়ে সন্তানসহ অসংখ্যক আত্মীয়-স্বজন ও বহু গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

স্বর্গীয় মুক্তি রাণীর দাসকে গতকাল দুপুরে তাঁর গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার এক নম্বর বেলাইচন্ডী বেনিরহাটের পারিবারিক শ্মশানে তাকে দাহ্ করা হয়েছে। তাঁর দাহ্ অনুষ্ঠানে সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ নেন।

 তাঁর মৃত্যুতে জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সংসদ সদস্য রাবেয়া আলীম, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন, সৈয়দপুর হিন্দু কল্যাণ সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট তুষার কান্তি রায়, সাধারণ সম্পাদক সুমিত কুমার আগরওয়ালা, বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ সৈয়দপুর উপজেলা শাখার সভাপতি শিল্পপতি রাজ কুমার পোদ্দার রাজু,  বাংলাদেশ হিন্দু , বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ সৈয়দপুর উপজেলা শাখার সভাপতি এ্যাডভোকেট সুবোধ কুমার, সাধারণ সম্পাদক যোগেন্দ্র নাথ রায়, আওয়ামী লীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার একেএম রাশেদুজ্জামান রাশেদ, সৈয়দপুর সানফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমান জুয়েল, হাজারীহাট স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. লুৎফর রহমান চৌধুরী, লক্ষণপুর স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. রেজাউল করিম রেজা, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ সৈয়দপুর পৌর শাখার সভাপতি সাংবাদিক গোপাল চন্দ্র রায়, সাধারণ সম্পাদক উন্নয়নকর্মী প্রতাপ সরকার বিজয়, নীলফামারী সদরের সংগলশী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান টিকেন্দ্রজিৎ রায় মীরু, সমাজসেবক মো. মশিউর রহমান, সৈয়দপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি আমিনুল হক, সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন লুতু প্রমূখ শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।             


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 7935664233582337163

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item