পাগলাপীরের ঠাকুরপাড়া হতে খলেয়া গঞ্জিপুর যাওয়ার সড়কটি পাকাকরণের দাবী

হাবিবুর রহমান সেলিম, পাগলাপীরঃ
রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীরের ঠাকুরপাড়া হতে খলেয়া গঞ্জিপুর যাওয়া তিন কিলোমিটার সড়কটি পাকাকরণ জরুরী হয়ে পরেছে। জানাগেছে পাগলাপীর হরিদেবপুর ও খলেয়া দু’টি ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী ঠাকুরপাড়া মোড় বিশ্বরোড হতে তপন চক্রবর্তীর গোডাউন বাড়ীর সামন হয়ে হরকলি কচুটারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামন দিয়ে খলেয়া গঞ্জিপুর যাওয়া তিন কিলোমিটার সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে পাঁকাকরণ করা হচ্ছে না। কবে নাগাত সড়কটি পাঁকাকরণ করা হবে আজও জানে না সড়কে চলাচলরত শিক্ষার্থী, পথচারীসহ ভূক্তভোগী পঞ্চাশ হাজার জনগোষ্ঠী। ইতিপূর্বে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন জাতীয় ও স্থানীয় ও অনলাইন বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশ হলে রংপুর সদর উপজেলা প্রশাসন ২০১৮/১৯ ইং অর্থ বছরে সড়কটি পাকাকরণের উদ্যোগ গ্রহণ করেন। সড়কটির জিরো পয়েন্ট খলেয়া গঞ্জিপুর বাজার হতে নুনীটারী গ্রামের বাসিন্দা নরেশ মাস্টারের বাড়ীর সামন পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার পাঁকাকরণ করা হলেও উক্ত স্থান হতে হরকলি কচুটারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হয়ে ঠাকুরপাড়া মোড় বিশ্বরোডের তপনের গোডাউন বাড়ীর সামন পর্যন্ত বাকী দেড় কিলোমিটার সড়কটি পাকাকরণ করা হয়নি। ফলে উক্ত দেড় কিলোমিটার সড়কটি পাকাকরণ না হওয়ায় সামান্য বৃষ্টিপাতের পানিতে সড়কটির বিভিন্ন স্থানে হাটু পানি কিংবা পায়ের গোড়ালী পর্যন্ত পানি জমে উঠে জলাশয়, ডোবায় পরিণত হয়। আবার কোথাও কোথাও কাাঁদা পানির একাকারে পরিনত হয়ে পরায় যানবাহন চলাচল করা তো দূরের কথা শিক্ষার্থী পথচারীসহ সাধারন মানুষজনের চলাচল দুঃসাধ্য হয়ে পরে। সরেজমিনে ঠাকুরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা তপন চক্রবর্তী (সহকারী অধ্যাপক-রাধা রানী মহিলা ডিগ্রী কলেজ, কিশোরগঞ্জ, নীলফামারী), বিশিষ্ট পল্লী চিকিৎসক ডাঃ নিখিল চন্দ্র রায় ও জাসদ নেতা নারায়ন চন্দ্র রায় সহ ঠাকুরপাড়া গ্রামের বিভিন্ন মহল অভিযোগ করে সাংবাদিককে বলেন, সড়কের বাকী দেড় কিলোমিটার পাঁকাকরণের অভাবে আমাদেরকে দূভোগের মধ্যে প্রতিনিয়ত চলাচল করতে হচ্ছে। তবে বর্ষা মৌসুমে একটু বৃষ্টিপাতের পানিতে সড়কটি কাঁদাপানিতে একাকারে পরিণত হওয়ায় ঠাকুরপাড়া সহ সড়কে চলাচলরত অর্ধলক্ষ জনগোষ্ঠীকে পাগলাপীর বন্দর হয়ে কিংবা শলেয়াশাহ বাজার হয়ে দীর্ঘ পথ অতিক্রম করে খলেয়া গঞ্জিপুর পরিষদ, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ভূমি অফিস সহ নানান গন্তব্য স্থানে পৌছে প্রয়োজনীয় কাজ-কর্ম সাড়তে হচ্ছে। এতে করে এক দিকে অতিরিক্ত সময় বয় হচ্ছে অন্যদিকে খরচ হচ্ছে বারতি টাকা। তাই দূর্ভোগের কবল থেকে রক্ষা পেতে উক্ত ব্যক্তিগণ সহ স্থানীয় বিভিন্ন মহল অবিলম্বে ঠাকুরপাড়া মোড় বিশ্বরোড হতে খলেয়া গঞ্জিপুর যাওয়া বাকী দেড় কিলোমিটার সড়কটি পাঁকাকরণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য খলেয়া ইউপি চেয়ারম্যান, সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ও সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্যর কাছে জোড় দাবী জানিয়েছেন। 

পুরোনো সংবাদ

রংপুর 9047359777032366146

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item