লকডাউন ডিমলার বাবুরহাট যেন জমজমাট

বিশেষ প্রতিনিধি-
নীলফমারীর ডিমলা উপজেলার প্রধান শহরের বাবুরহাটটি লকডাউন (অবরুদ্ধ)।এলাকার সচেতন মহল বলছেন উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক এই ঘোষনা এখন অনেকটাই কাগুজে আদেশে পরিণত হয়েছে। কেউ মানছেনা কোন আদেশ। করোনা পজিটিভ ব্যাক্তির ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি লকডাউন বলা হলেও সেখানেও নেই কার্যকারিতা। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বসেই করোনা পজেটিভ হন। বাবা গেছে আইশলেসনে তাই ছেলে দোকান খুলে ব্যবসা করছে! আজ শনিবার সকাল থেকে দেখা যায়, লকডাউন বাবুরহাট জমজমাট।
জানা যায় ডিমলা উপজেলা কোভিড-১৯ সংক্রমনের হার বেড়ে যাওয়ায় উপজেলা প্রশাসন বাবুরহাটসহ আশপাশের এলাকা লকডাউন ঘোষনা করে। ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও করোনা ভাইরাজ প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি জয়শ্রী রানী রায় লকডাউনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। গত তিনদিনে ডিমলা উপজেলা আক্রান্ত হয়েছে ২৭জন সহ মোট আক্রান্ত ৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে।
গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে উপজেলার সদরের বাবুরহাট, কাউশা বাজার, পোষ্ট অফিস মোড়, মেডিকেল মোড়সহ আশাপাশের ঔষধ ও কাঁচামাল ছাড়া সকল দোকাটপাট বন্ধ করে লকডাউনের আদেশ ও ঘোষনা করা হয়।
ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সারোয়ার আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ডিমলা উপজেলা সদরে ঔষধ ও মুদি দোকানের ৮ ব্যবসায়ী সহ ২৭ জন করোনা পজেটিভ হয়।
তাই এলাকাটি লকডাউন ছাড়া কোন বিকল্প ছিলনা।
গতকাল শুক্রবার উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক ডিমলার বাবুরহাট এলাকা লকডাউন করা হলেও আজ শনিবার দেখা গেছে সেই পুরনো চিত্র। করোনা সংক্রামণের ঝুঁকি জেনেও রাস্তায় বের হচ্ছেন মানুষ। ওষুধ ও কাচাবাজার ব্যতিত অপ্রয়োজনীয় অন্যান্য দোকান খোলা রাখতে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও কেউ মানছেনা লকডাউন। মুদিদোকান, ইলেক্ট্রনিক, কসমেটিক্স, হার্ডওয়্যার, কাপড় ও মুঠোফোনসহ অন্যান্য ব্যবসায়ীরাও খুলেছে দোকান। দোকানের কাছে দাঁড়িয়ে থেকে ক্রেতা নিশ্চিত করে তবেই ভেতরে ঢুকিয়ে পণ্য বিক্রি করছেন তারা। পাশাপাশি দোকানের কাছে দাঁড়িয়ে থেকে ক্রেতা পণ্য কিনছে।
দেখা যায়, দক্ষিন তিতপাড়ার মুদি ব্যবসায়ী আইউব আলী (৫০) বাবুরহাটে তার গালামালের দোকানে বসেই করোনা পজেটিভ হয়। তিনি সহ বেশ কিছু ওষধের দোকানের মালিকও করোনা পজেটিভ হয়েছে।
যেহেতু উপজেলা শহরের প্রধান এলাকা বাবুরহাটের উপরেই করোনা পজেটিভ। সেহেতু তা লকডাউন ছাড়া কোন বিকল্প ছিলনা প্রশাসনে। কিন্তু দেখা গেলে লকডাউনের ভেতরে করোনা পজেটিভ আইউব আলীর ছেলে ঝাপতুলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালু করে বিকিকিনি করতে। দুর হতে ছবি তোলার সময় দেখা যায় এক নারী ওই মুদিদোকানের সামনে দাঁড়িয়ে ভোগ্য পণ্য ক্রয় করছে।



এ ছাড়া রিক্সা ভ্যানের পাশাপাশি অটোরিক্সাও চলাচল চলছে।
এদিকে ডিমলর জনগণকে লকডাউন মেনে চলার আহবান জানিয়েছেন নীলফামারীর জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী। করোনা এড়াতে সবাইকে ঘরে থাকার অনুরোধ করেছেন তিনি। একান্ত বের হতে হলে মাস্ক-গেøাভস পড়ে বের হওয়ার আহবান জানান তিনি।#

পুরোনো সংবাদ

হাইলাইটস 2302572686911255234

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item