করোনা যুদ্ধে বিজয়ী হলেন এনামুল মুক্ত হলো ফুলবাড়ী


মেহেদী হাসান উজ্জ্বল,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: 
দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে প্রথম করোনা রোগী আক্রান্তের পর সম্প‚র্ণ সুস্থ্য হওয়ায় এ উপজেলাটি করোনা মুক্ত হলো। উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের মধ্যমপাড়া গ্রামের এনামুল হক নামে ওই ব্যক্তি করোনা ভাইরাস মুক্ত হওয়ায় তাকে স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে ছাড় পত্র দেয়া হয়েছে। 
স্বাস্থ্য বিভাগ সুত্রে জানাগেছে,এর আগে তিনি গত ১৪ এপ্রিল করোনা শনাক্ত হন। প্রশাসন ও চিকিৎকদের নিবির পর্যবেক্ষণে আইসোলেশনে থাকার পর গত ২৫ এপ্রিল প‚ণরায় নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।
প্রথম দফায় ২৭ এপ্রিল এনামুল হকের করোনার ফলাফল নেগেটিভ আসে। পরে আবারও ২৭ এপ্রিল নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানোর হলে আবারো তা দ্বিতীয়বারের মত নেগেটিভ ফলাফল আসে। তবে দুই দফায় নেগেটিভ ফলাফল আসার পর আরো ৭দিন তাকে আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা হাসানুল হোসেন। এর পর গত ৩মে আবারো ফলোআপ পরিক্ষার জন্য তৃতীয় বারের মতো তার নমুনা সগ্রহ করে পাঠানো হলে,গত ৫ মে মঙ্গলবার সন্ধায় পরিক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসে। ওই রাতেই উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরী,উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হাসানুল হোসেন,থানার অফিসার্স ইনচার্জ ফকরুল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা করোনা জয়ী ওই বীরের বাড়িতে গিয়ে তাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান। এসময় উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে করোনা থেকে সুস্থ্য হওয়া এনামুল হককে সুস্থ্যতার সার্টিফিকেট,বিভিন্ন রকমের ফলমুল,ইফতার সামগ্রী ও অন্যান্য খাদ্য সামগ্রী উপহার দেন।
করোনা থেকে মুক্তি পাওয়া এনামুল হক বলেন,প্রায় ২০ দিনের বেশি সময় ধরে সরকারি বিধিবিধান মেনে চলেছি। প্রতিদিন জেলা প্রশাসক স্যার ইউএনও স্যার, পপ.কর্মকর্তা স্যার আমার খোঁজ খবর নিয়েছেন। নিয়মিত চিকিৎসা পরামর্শ ও খাদ্য সরবরাহ করেছেন। তাদের পরামর্শে আজকে আমাকে করোনামুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। আপাতত কয়েকদিন আমি বাড়িতেই থাকব,তবে সমাজের কোনো মানুষ যেনো করোনা রোগীদের খারাপ চোখে না দেখে বলে এই অনুরোধ জানান তিনি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরী বলেন,করোনা যোদ্ধা এনামুলের সুস্থতার মধ্যদিয়ে,আপাততো ফুলবাড়ী করোনা মুক্ত হলো, আমরা সকলে মিলে যদি সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি এবং অতি প্রয়োজন ব্যাতিত ঘরের বাইরে না যাই তবেই আগামী দিনগুলোতে এই সংখ্যা শুণ্যয় রাখা সম্ভব হবে এবং সেই সাথে করোনাযুদ্ধে আমরা জয়ী হবো বলে তিনি আশা ব্যাক্ত করেন।
এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হাসানুল হোসেন বলেন, ফুলবাড়ীতে এপর্যন্ত ৫০ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। তারমধ্যে ৪০ জনের পরিক্ষা ফলাফল পাওয়া গেছে সেগুলো নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। এবং এর মধ্যে গত ১৪ এপ্রিল ১জনের পরিক্ষার ফলাফল পজেটিভ হয়েছিল। ১৪দিন আইসোলেশনে থাকার পর তার ৩ বার নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর পরীক্ষা করেছি। প্রতিটি পরীক্ষায় তার নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। এজন্য আমরা তাকে করোনাজয়ী হিসেবে ছাড়পত্র দিয়েছি,সে বর্তমানে সম্পুর্ন সুস্থ্য রয়েছে। আপাততো এ উপজেলা করোনা মুক্ত।

পুরোনো সংবাদ

হাইলাইটস 2908494063875609724

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item