জলঢাকায় ফেসবুকে ভাতিজির ভুয়া গুজব ছড়ায় ফেসে গেছে চাচা

নিজস্ব  প্রতিনিধি: নীলফামারীর জলঢাকায় ফেসবুকে ভাতিজির ভুয়া গুজব ছড়ায় ফেসে গেছে চাচা ।

অভিযুক্ত ওই চাচাকে ভ্রাম্যমান আদালতে শনিবার বিকাল ৫টায় ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুজাউদ্দৌলা। এসময় অভিযোগকারী মেয়ের বাবা হাফিজুর রহমান ও মেয়ে হাফিজা আক্তার দুলালী উপস্থিত ছিলেন।

মেয়ের বাবার অভিযোগে জানা যায়, তার মেয়ে সদ্য এসএসসি পরীক্ষায় কৃতকার্য। স্কুলে থাকাকালীন প্রায়সময় ইভটিজিংসহ পথরোধ করে নানান অঙ্গভঙ্গি, অশ্লীল কথাবার্তা বলতো প্রতিবেশী চাচা সম্পর্কে একরামুল হক (২২) নামের ওই যুবক। সে পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড চৌধুরীপাড়া এলাকার ছাইদুল ইসলামের ছেলে। এক পর্যায়ে অভিযুক্ত ওই যুবক নিজ নামীয় ফেসবুক এ্যাকাউন্টে তার ভাতিজির নাম জড়িয়ে ভুয়া কাবিননামা সাজায়ে বিয়ে হয়েছে বলে প্রচারণা চালাতে থাকে। পরে মেয়েটির বাবা হাফিজুর রহমান হাফিজ উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে লিখিতভাবে অভিযোগ করে।

সম্প্রতি, ফেসবুক আইডিতে পূর্বের অভিযোগ ও মিথ্যা কাবিন নামার গুজব ছড়ানোর অভিযোগে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। বিকালে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সুজাউদ্দৌলা গ্রেফতারকৃত একরামুলকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন।

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 7503446370282781630

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

শিল্প-সাহিত্য

ফেসবুক লাইকপেজ

তারিখ অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item