দুর্নীতিমুক্ত নীলফামারী গড়ার অঙ্গীকার পৌরসভা মেয়র এর


সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
: ১৬ আগস্ট ২০২১ সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) নীলফামারী। 

দুর্নীতিমুক্ত নীলফামারী গড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ। রবিবার(১৫ আগস্ট/২০২১) সন্ধা সাড়ে সাতটায় সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) আয়োজিত “বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ” শীর্ষক জাতীয় শোক দিবসের ভার্চুয়াল আলোচনায় তিনি এই প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সনাক সদস্য ইতা হাঁসদা’র সঞ্চালনায় দুই ঘন্টাব্যাপী চলমান জাতীয় শোক দিবসের ভার্চুয়াল আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন সনাক সভাপতি তাহমিনুল হক ববী।

সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন পৌরপিতা দেওয়ান কামাল আহমেদ।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন মশিউর রহমান ডিগ্রী কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ সরোয়ার মানিক, জেলা পরিষদের সদস্য ও বৈশাখী টিভির জেলা প্রতিনিধি ইশরাত জাহান পল্লবী, টিআইবি’র রংপুর অঞ্চলের সমন্বয়ক কমল কৃষ্ণ সাহা।

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি চারণ করে পৌর মেয়র বলেন, পদ-পদবী, লোভ-লালসা কখনোই ¯পর্শ করতে পারে নি জাতির জনককে। তিনি শোষণমুক্ত, নিপিড়নমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে মন্ত্রীত্ব ছেড়েছিলেন, কারাভোগ করেছিলেন, যুদ্ধ করেছিলেন। স্বাধীনতা পরবর্তী একের পর এক নির্দেশনা দিয়েছিলেন দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার জন্য। বঙ্গবন্ধুর সবসময় স্বপ্ন ছিলো দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়া, তিনি সাধারণ মানুষকে সম্মান দিতে সর্বাÍক সচেষ্ট ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করে নীলফামারীকে দুর্নীতিমুক্ত করার অঙ্গীকার করেন তিনি।

জেলা পরিষদের সদস্য ইশরাত জাহান পল্লবী বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগস্টের সকল শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, বঙ্গবন্ধু মাত্র ৫৪ বছর বয়সে একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখেন এবং একটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি সবসময় দুর্নীতিকে এক নাম্বার সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করেছিলেন এবং দেশ স্বাধীনের পর দুর্নীতির বিরুদ্ধে কাজ করেছিলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিলেন। জাতির জনকের অসমাপ্ত কাজ তাঁর সুযোগ্য কন্যা মানণীয় প্রধানমন্ত্রী এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে মানণীয় প্রধানমন্ত্রীকে সহযোগিতা করতে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

“আমার এই দেশে কৃষক, শ্রমিক তাঁরা তো দুর্নীতি করে না, দুর্নীতি করে ৫% কিছু শিক্ষিত ব্যক্তি”- বঙ্গবন্ধুর এই উক্তি উল্লেখ করে সরোয়ার মানিক বলেন, বঙ্গবন্ধু দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে প্রচুর কাজ করেছেন। মাত্র সাড়ে তিন বছরে তিনি কুদরত-ই-খুদা শিক্ষা কমিশন গঠন করেছিলেন। অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির জন্য তিনি অনেক অবদান রেখেছেন।

বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও আদর্শের অনুপ্রেরণায় উজ্জিবীত হয়ে টিআইবি-সনাক এর দুর্নীতিবিরোধী কর্মকান্ড স¤পর্কে আলোচনা করেন সনাক, স্বজন, ইয়েস ও ইয়েস ফ্রেন্ডস গ্রুপের সদস্যবৃন্দ। সভায় সনাক সংশ্লিষ্ট সদস্যরা ছাড়াও জেলায় অধ্যায়নরত তরুণ শিক্ষর্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, ভার্চুয়াল আলোচনা শেষে ১২ আগস্ট আন্তর্জাতিক যুব দিবস উপলক্ষে সনাক আয়োজিত দুর্নীতিবিরোধী কুইজ প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। বর্নিত কুইজ প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেন নাইমুর রহমান কর্তবী, দ্বিতীয় স্থান অধিকার কনে যৌথভাবে মিথুন হক লিটন ও কামরুন নাহার বৃতি এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেন মোঃ ফিরোজ। তাঁরা সকলেই নীলফামারী সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী। # 


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 8652593877612406763

অনুসরণ করুন

Logo

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item