নীলফামারীতে তহশিলদারের হুমকীতে বৃদ্ধের আত্মহত্যার অভিযোগ


বিশেষ প্রতিনিধি॥


নীলফামারী সদরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে দিনমজুর কছিম উদ্দিন (৭৫) নামের এক বৃদ্ধ। বৃহস্পতিবার(২০ মে/২০২১) সকালে আত্নহনন ঘটালে দুপুরে রামনগর ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রাম থেকে বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তিনি ওই গ্রামের মৃত নজর উদ্দিনের ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, ভূমিহীন কছিম উদ্দিন সরকারি একখন্ড খাস জমিতে বাড়ি করে বসবাস করে আসছিলেন। এরই মধ্যে ইউনিয়ন সহকারি ভূমি কর্মকর্তা মোক্তার আলী ওই জমি থেকে বাড়ি সরিয়ে নেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করেন। নইলে উচ্ছেদ করার কথা জানান। এমন চাপে পড়ে বৃহস্পতিবার সকালে তিনি  গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে।

কছিম উদ্দীনের ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩৮) সাংবাদিকদের জানায়, বাড়ী করার জন্য তহশীলদার মোক্তার আলী নিজে ওই স্থানের আট শতক জমি মেপে দিয়েছিলেন। এটির জন্য জন্য তিনি (তহশীলদার) আমাদের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকাও নিয়েছেন। জমিটি নিচু হওয়ায় সেটিতে মাটি ভরাট করে আমরা বাড়ী করি। এরপর গত মঙ্গল ও বুধবার তহশীলদার এসে বাড়ী ভাঙ্গার হুমকি দেয়। না হলে পুলিশ দিয়ে ধরে নিয়ে হাজতে ঢুকানো এবং বাড়ী উচ্ছেদ করার কথা বলে। এমন হুমকীতে হতাশ হয়ে আমার বাবা আত্মহত্যা করেছে বলে শরিফুল অভিযোগ তুলে।’শরিফুল ইসলামের স্ত্রী বিলকিস বানু (৩২) বলেন,‘তহশীলদাদের নির্দেশেই সেখানে বাড়ী করি। গত দুই দিন ধরে সেখান থেকে বাড়ী সরানোর জন্য তিনি হুমকী দিয়ে যাচ্ছিলেন।  বুধবার সকালে এবং সন্ধ্যায় আমার শ্বশুরকে তহশীলদার তার অফিসে ঢেকে নিয়ে বাড়ী সরানোর চাপ দেয় এবং জেল খাটানোর ভয় দেখায়। এমন হতাশা এবং ভয়ে আমার শ্বশুর আত্মহত্যা করেছে।’ তিনি অভিযোগ করে বলেন, তহশীলদার জমি মাপার সময় আমার শ্বশুরের কাছে ৫০ হাজার  টাকাও নেয়। 

এবিষয়ে রামনগর ইউনিয়ন সহকারি ভূমি কর্মকর্তা (তহশিদার) মোক্তার আলীর সাথে সাংবাদিকরা তার অফিসে কয়েক দফা গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। কয়েক দফা কল করার পর তিনি সাংবাদিকদের মুঠোফোনে কথা বললেন। তিনি বলেন,‘আমি কখনো তাদের এমন কথা বলিনি। কছিম উদ্দিনের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করেন তিনি। অফিসে নেই কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি বিশেষ কাজে অন্যস্থানে গিয়েছি।

তবে এলাকাবাসী জানায় তাদের ইউনিয়নের তহশিলদারের ঘুষ বানিজ্যে তারা অতিষ্ঠ। গ্রামবাসী তহশিলদারের অপসারন সহ সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে বিচার দাবি করেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতার সাংবাদিকদের বলেন,তহশিলদার কছিম উদ্দিনকে কি বলেছেন সে বিষয়ে আমার জানা নেই। তবে তিনি (তহশীলদার) কোন অন্যায় করে থাকলে অবশ্যই তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ’

নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রউপ বলেন, ‘বিষয়টি জানার পর  লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় শরিফুল ইসলাম থানায় অপমৃত্যুর একটি ডায়েরি করেছে।  # 


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 298413681035257289

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item