নীলফামারীতে চলন্ত ভ্যানে ভুমিষ্ঠ হওয়া নবজাতক রাস্তায় ছিটকে পড়ে মৃত্যু


নির্ণয়,নীলফামারী॥
পৃথিবীর আলো দেখতে না দেখতেই পৃথিবী ছেড়ে চলে গেল নবজাতক পুত্র সন্তানটি। মঙ্গলবার দুপুরে সদর জেনারেল হাসপাতালে যাওয়ার সময় চলন্ত ভ্যানে এক গৃহবধু প্রসব করে পুত্র সন্তানটি। কিন্তু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর চলন্ত ভ্যান থেকে রাস্তায় ছিটকে পড়ে আহত হয়ে মারা যায় নবজাতটি। মেয়ে সন্তানের পর দীর্ঘ ৬ বছর পর ছেলে সন্তান জন্ম দিয়ে সন্তানটিকে বাঁচাতে না পেরে প্রসুতি মা অসুস্থ্য হয়ে শোকে পাথর হয়ে পড়েছে। তাকে জেনারেল হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। 

এলাকাবাসী জানায় জানায়, জেলা সদরের চাপড়া সরনজামী ইউনিয়নের যাদুরহাট বাড়াইপাড়া গ্রামের মহুবার রহমানের স্ত্রী রুবিনা বেগম(৩০)। বেলা ১২টায় প্রসব বেদনা শুরু হলে বাড়ি থেকে প্রসুতিকে  প্রথমে নেয়া হয়  গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিকে। সেখানে নরমাল ডেলিভারী না হওয়ায় তাকে প্রেরণ করা হয় জেলা সদরের জেনারেল হাসপাতালে। ব্যাটারীচালিত ভ্যানে তাকে দ্রুত নিয়ে আসা হচ্ছিল।

ওই গৃহবধুর স্বামী মহুবার রহমান জানান, তাদের ৬ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। দীর্ঘদিন পর তার স্ত্রী দ্বিতীয় সন্তান ধারন করে। পরীক্ষা নিরিক্ষায় পুত্র সন্তান হবে যেনে আমরা খুশী ছিলাম। কিন্তু সেই সন্তানটিকে আর বাঁচাতে পারলাম না। তিনি কান্না বিজরিত কন্ঠে বলেন চলন্ত ভ্যানের তার স্ত্রী পুত্র সন্তান প্রসব করলে নবজাতটি ভ্যান থেকে ছিটকে রাস্তায় পড়ে যায়। নবজাতকটি উঠিয়ে যখন হাসপাতালে পৌছলাম তখন সব শেষ। জরুরী বিভাগের চিকিৎসক জানালেন মাথায় আঘাতের কারনে নবজাতকটি মারা যায়।  

জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার অমল রায় বলেন চলন্ত ভ্যানে প্রসবের কারনে নবজাতটি রাস্তায় ছিটকে পড়ায় তার শরীরে আঘাত লাগে। ফলে নবজাতটির মৃত্যু হয়। তবে আমরা প্রসুতিকে গাইনী ওয়ার্ডে ভর্তি করে সু-চিকিৎসা প্রদান করছি। #


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 2314625191926331574

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item