পার্বতীপুরে প্রাচীন আমলের ধ্বংস প্রাপ্ত রানী রাশমনির হাবড়ার কাছারী বাড়ী


এম এ আলম বাবলু,পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ



দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলা শহর থেকে ৮ কিঃ মিঃ দক্ষিনে পার্বতীপুর-ফুলবাড়ী রাস্তার পাশে উপজেলার হাবড়া ইউনিয়নের অন্তগত হাবড়ায় প্রাচীন আমলের ধ্বংস প্রাপ্ত বেশ কিছু দালান কোঠা ,বৃক্ষরাজ চোখে পড়ে। এসব হাবড়ার কাছারী আমলের কীর্তি। সম্ভাবত ১২২১ বঙ্গাব্দে অর্ধ বঙ্গেশ্বরী নামে খ্যাত রানী রাশমনি এখানে বিশাল জমিদারী প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তখন স্থানটির যথেষ্ট চাকচিক্য ও জাঁকজমক ছিল। জমিদারী প্রথা বিলুপ্ত হবার পর রুপ লাবন্য হারিয়ে হাবড়ার আজ মলিন ও শ্রীহীন অবস্থা। বর্তমানে এখানে সপ্তাহে দু‘টি হাট বসে। রাস্তা পাকা হওয়ায় যোগাযোগ সহজ হয়েছে। বর্তমানে দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার ক্ষুদ্র একটি ইউনিয়ন হলেও ১৮০০ ইংরেজী সালের দিকে হাবড়া থানার প্রশাসনিক হেড কোয়াটার ছিল। মন্টোগোমারি মার্টিনের ইস্টার্ন ইন্ডিয়া (প্রকাশকাল,লন্ডন ১৮৩৬ ইং) গ্রন্থের বিবরন, আঞ্চলিক কবি জামাল উদ্দিনের প্রেমরত্ন কাব্য(১২৩০বঙ্গাব্দে প্রকাশিত) সর্বোপরি পুরানো দলিল দস্তাবেজে হাবড়া থানার পরিচয় মেলে। এখানে ৮/১০ বর্গ কিলোমিটার জুড়ে স্তুপ ও প্রাচীন ঘর বাড়ীর ধ্বংসাবশেষ দৃষ্টিগোচর হয়।এর ইতিহাস অতি প্রাচীন৷ তবে এখানকার ২/১ টি বাড়ী ঘর সংস্কারের মাধ্যমে সরকারী দপ্তর হিসেবে পরিচালিত হয়ে আসছে৷

পুরোনো সংবাদ

দিনাজপুর 2848884040958913517

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item