পার্বতীপুরে নিখোঁজ যুবকের গলিত লাশ উদ্ধার



ম এ আলম বাবলু,পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ


দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায় (২৭ সেপ্টেম্বর) রবিবার ভ্যানসহ নিখোঁজের ৭ দিন পর (৪ অক্টোবর) রবিবার  উপজেলার ৫ নম্বর চন্ডিপুর ইউনিয়নের ধানক্ষেত থেকে আজিজুল সরকার (বাপ্পি) নামে এক যুবকের গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ। নিখোঁজের দিনে তার পরণে ছিল নীল রঙ এর শার্ট এবং ছাই রঙ এর প্যান্ট। নিহত বাপ্পীর বাড়ী পার্বতীপুর উপজেলার ২ নম্বর মন্মথপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রাজাবাসর (বানিয়াপাড়া) গ্রামে৷ তার পিতার নাম আতাউর রহমান৷

জানা গেছে, চার্জার ভ্যান চালক আজিজুল সরকার বাপ্পী ওরফে রাব্বি (২২) ঘটনার দিন রবিবার বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। নিখোঁজের ২ দিন পরে ভ্যানটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার হলে তখনও মেলেনি বাপ্পীর’র খোঁজ। এক সপ্তাহেও তার সন্ধান না মেলায় শোকের ছায়া নেমে আসে পরিবারটিতে। একমাত্র শিশু পুত্র খোরশেদকে কোলে নিয়ে বাপ্পীর স্ত্রী খুরশিদা পারভীন খুশি প্রতিদিন খুঁজতে থাকেন তার স্বামীকে। জানা যায়, উপজেলার মন্মথপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রাজাবাসর (বানিয়াপাড়া) গ্রামের আজিজুল সরকার বাপ্পী কলেজে লেখাপড়ার পাশাপাশি রাজমিস্ত্রীর কাজ করতো। রাজমিস্ত্রী কাজ বন্ধ থাকায় ( ২৭ সেপ্টেম্বর) রবিবার বাবার চার্জার ভ্যানটি নিয়ে দুপুর প্রায় ৩ টার দিকে বাড়ী থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। পরিবারে লোকজন নানাভাবে চেষ্টা চালিয়ে তার সন্ধান না পেয়ে তখন থানায় অবগত করেন। পরে পুলিশ উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের বাজার পাড়ার এক ইউপি সদস্যের বাড়ি থেকে ভ্যানটি উদ্ধার করে। কিন্তু বাপ্পির সন্ধান আর মেলেনা। বাপ্পির স্ত্রী খুরশিদা পারভীন জানান, মাত্র ৩ বছর আগে বিয়ে হয়েছিলো তাদের। ঘটনার দিন রবিবার দুপুরে তার স্বামী ভ্যান নিয়ে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। বাজারপাড়া গ্রামের লোকজন রাতে গ্রাম্য রাস্তায় একটি ভ্যান পড়ে থাকতে দেখে তা উদ্ধার করে ইউপি সদস্যের হেফাজতে দেয়। পুলিশ ভ্যানটি উদ্ধার করে আমাদের বুঝিয়ে দিয়েছে, কিন্তু তার স্বামীর সন্ধান পায়নি। প্রতিদিন সন্তানকে কোলে নিয়ে স্বামীর সন্ধানে বের হয়ে কোন কুল কিনারা করতে পারেন না। তিনি জানান, তার স্বামীর কোন শত্রু ছিল না। তবে স্থানীয় এক রাজমিস্ত্রীর কাছে কয়েক দিন আগে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে তর্ক হয়েছিল তার। ওই ব্যক্তি আমার স্বামীকে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে বলেছিলেন- 'তোর এমন অবস্থা করবো যে তুই ভাবতে পারবিনা!' পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল রানা বলেন, ভ্যান চালক নিহতের ঘটনায় থানায় সাধারন ডায়েরি হয়েছে। পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তদন্ত করে অবশেষে রবিবার দুপুরে ৫ নং চন্ডিপুর ইউনিয়নের এক ধানক্ষেত থেকে তার কঙ্কাল (গলিত) লাশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে নিহত বাপ্পীর পিতা আতাউর রহমান বাদী হয়ে পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে৷

পুরোনো সংবাদ

নির্বাচিত 7835266043350196947

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item