জনপ্রিয় হয়ে উঠছে পারিবারিক পুষ্টি বাগান


ফজলুর রহমান,পীরগাছা(রংপুর)ঃ

রংপুরের পীরগাছায় দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে পারিবারিক পুষ্টি বাগান। বন্যাসহ নানা আপদকালীন সময়ে দেশে সবজি উৎপাদনে কোনো প্রভাব না পড়ে সেই লক্ষ্যে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা ধরে রাখতে প্রতি ইঞ্চি কৃষি জমির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বসত বাড়ির আঙ্গিনাসহ পতিত জমিতে স্থাপন করা হচ্ছে এই পারিবারিক পুষ্টি বাগান।


উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি বৃষ্টি ও দফায় দফায় বন্যার কারণে কৃষকের আগাম সবজির খেত নষ্ট হয়ে যায়। সবজি চাষ চলমান রাখার জন্য উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর কৃষকদের ফেলে রাখা বাড়ির আঙ্গিনাসহ পতিত জমিতে পারিবারিক পুষ্টি বাগান তৈরি করতে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করে আসছে। উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ২শ ৮৮ জন কৃষকের বাড়িতে এই পারিবারিক পুষ্টি বাগান তৈরির কাজ করতে সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করছেন কৃষি কর্মকর্তাগণ।

প্রতিটি পারিবারিক পুষ্টি বাগানে উৎপাদিত নানা রকমের বিষমুক্ত সবজি দিয়ে কৃষকরা নিজেদের প্রয়োজন মিটিয়ে অতিরিক্ত সবজিগুলো বাজারজাত করে বাড়তি অর্থও আয় করছেন তারা।


উপজেলার তাম্বুলপুর গ্রামের কৃষক শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘বাগান তৈরির খরচ হিসেবে সরকারের কাছ থেকে ১ হাজার ৯শ ৩৫ টাকা পেয়েছি। বাগান থেকে উৎপাদিত সবজি দিয়ে একদিকে যেমন আমার পারিবারিক সবজির চাহিদা মিঠাতে পারছি অন্যদিকে বাড়তি সবজি বিক্রি করে আমার বাড়তি অর্থ আয় হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামীমুর রহমান বলেন, বর্তমানে উপজেলার কৃষকদের মাঝে পারিবারিক পুষ্টি বাগান জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। আমরা প্রতিটি বাগানের জন্য ঢেঁড়স, ধনিয়া, লাউ, সিম, ডাটা, চিচিংগা, পুইশাক, কলমি শাক, লাল শাক, পালং শাক, পেঁপে, মুলা শাক ও করল্লা সহ ১৫ প্রকারের সবজির বীজ বিনামূল্যে সরবরাহ করেছি। আমরা আশা রাখি আগামীতে উপজেলার প্রতিটি বাড়িতেই তৈরি হবে একটি করে পারিবারিক পুষ্টি বাগান।## 


পুরোনো সংবাদ

রংপুর 7067825920655065210

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item