নীলফামারীতে ৩ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল

ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়, নীলফামারী প্রতিনিধি ১১ জানুয়ারি॥ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী (মুজিব বর্ষ) উপলক্ষে সারা দেশের ন্যায় দ্বিতীয় পর্যায়ে নীলফামারীর ছয় উপজেলা, চার পৌরসভা ও ৬১ ইউনিয়নে ছয় মাস থেকে পাঁচ বছর বয়সী তিন লাখ ১৪২ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়।
সকাল ৮টা থেকে বিকার ৪টা পর্যন্ত এ ক্যাম্পেইন চলে।
আজ শনিবার(১১ জানুয়ারি/২০২০) সকাল ৯টায় জেলা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অফিস চত্বরে নীলফামারী পৌরসভা ও সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ বিভাগের আয়োজনে এ জেলার জাতীয় ভিটামিন এ ক্যা¤েপইনের উদ্ধোধন করেন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মির্জা মুরাদ হাসান বেগ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নীলফামারী সার্কেল) রুহুল আমিন, নীলফামারী পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সিভিল সার্জন ডা. রনজিত কুমার বর্ম্মন, জেলা পরিবার পরিকল্পনার উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) আফরোজা বেগম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আক্তার, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুল হালিম প্রমুখ।

জেলা সিভিল সার্জেন কার্যালয়ের সূত্র মতে, “ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ান, শিশুমৃত্যুর ঝুঁকি কমান” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ২৩ তম জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনে আওতায় জেলায় ৩ লাখ ১৪২ জন শিশুকে প্রথম পর্যায়ে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হচ্ছে। ছয় থেকে ১১মাস বয়সের ২৯ হাজার ৮১৪ জন এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সের ২ লাখ ৭০ হাজার ৩২৮জন শিশু রয়েছে। ১১ মাস পর্যন্ত বয়সীদের নীল রঙ এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সীদের লাল রঙের ক্যাপসুল এক হাজার ৫৮৭টি কেন্দ্রে তিন হাজার ১৭৪জন স্বেচ্ছাসেবক, ৫৪৯ জন তদারককারী এবং ১৯১জন সুপারভাইজার করা করে। তাদের প্রথম বারের মতো অনলাইন অ্যাপসের মাধ্যমে কর্মসূচি তদারক করা হয়। এছাড়াও ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রগুলো বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বাসস্ট্যান্ড, বিমানবন্দর, রেলস্টেশন, ইউনিয়ন পরিষদে অবস্থান করে। #

পুরোনো সংবাদ

স্বাস্থ্য-চিকিৎসা 620031726310107450

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item