নীলফামারী জেলা ৫২৪ দিন পর করোনা শূন্য


নির্ণয়,নীলফামারী॥
করোনা সংক্রমন প্রথম রোগী শনাক্তের ধারাবাহিকতার এক বছর ৫ মাস ৬ দিন পর করোনা শূণ্য হয়েছে উত্তরের জেলা নীলফামারী। গত ২৪ ঘন্টায় জেলার ৬ উপজেলা ও চারটি পৌর এলাকার পিসিআর ও র‌্যাপিড এন্টিজেনে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষার রির্পোটে করোনা শূণ্য রির্পোট ফলাফল পাওয়া যায়। সেই সঙ্গে ছিলনা কোন মৃত্যুর রির্পোট। 

আজ মঙ্গলবার(১৪ সেপ্টেম্বর/২০২১) সকালে সিভিল সার্জন ডাঃ জাহাঙ্গীর কবির এই খবর জানিয়ে নীলফামারী জেলাকে করোনা মুক্ত রাখতে স্বাস্থ্যবিধির নিয়ম মেনে মাস্ক পরিধান অব্যাহত রাখার আহবান জানান। জেলাবাসী এই খবর পেয়ে আল-হামদুলিল্লাহ উচ্চারনে মহান সৃষ্টিকর্তার নিকট শুকরিয়া আদায় করেছে। এর আগের ২৪ ঘন্টায়(সোমবার) জেলায় ৯৮ নমুনায় ৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছিল। এ ভাবে প্রতিদিন গড়ে ৯০ নমুনায় ৫ বা ৬ জন করে করোনা শনাক্ত হয়ে আসছিল। 

নীলফামারী জেলায় ২০২০ সালের ৭ এপ্রিল প্রথম করোনা সংক্রমন রোগী শনাক্ত হন কিশোরীগঞ্জ উপজেলায়। সেই দিন থেকে ৫২৪ দিন পর নীলফামারী জেলার ৯৪ নমুনায় করোনা পজেটিভের শুন্য রির্পোট এলো গত ২৪ ঘন্টায়। 

স্বাস্থ্য বিভাগের কন্ট্রোলরুম সুত্র মতে জেলায় গত বছরের ৭ এপ্রিল থেকে  চলতি বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ বছর ৫ মাস ৬  দিনে করোনা নমুনা পরীক্ষা করা হয় ২৯ হাজার ৮৮৪ জনের। রির্পোটে করোনা সংক্রমন হন ৪ হাজার ৩৫৮ জন। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত পূর্বে শনাক্ত ৫১ জন করোনা সংক্রমন রোগী তাদের নিজ নিজ বাড়িতে চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে জেলা সদরে ১০ জন, ডোমার উপজেলায় ১৩ জন, ডিমলা উপজেলায় ১ জন, জলঢাকা উপজেলায় ৩ জন, কিশোরীগঞ্জ উপজেলায় ১৫ জন ও সৈয়দপুর উপজেলায় ৯জন। তারা ধীরে ধীরে সুস্থ্য হয়ে উঠছেন। এ ছাড়া জেলার জেনারেল হাসপাতাল সহ ছয় উপজেলার হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বর্তমানে কোন রোগী চিকিৎসাধীন নেই।

অপর দিকে সিভিল সার্জন অফিস সুত্র মতে এ জেলায়  এ   পর্যন্ত করোনা ভ্যাকসিনের  ৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩৩৮ ডোজ প্রদান করা হয়। এরমধ্যে সাইনোর্ফাম ভ্যাকসিনের ডোজ গ্রহন করে ২ লাখ ৫৪ হাজার ৮৮৫ জন। এদের মধ্যে প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৫৭ হাজার ১৮৫ ও দ্বিতীয়ডোজ গ্রহন করেছে ৯৭ হাজার ৭০০। অ্যাষ্ট্রাজেনেকা করোনা ভ্যাকসিনের ডোজ গ্রহন করে ২লাখ ৪৫৩ জন। এরমধ্যে প্রথম ডোজ নিয়েছে ১ লাখ ৩১ হাজার ৫৩৩ ও দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করেন ৬৮ হাজার ৯২০ জন। বর্তমানে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রদান অব্যাহত রয়েছে জেলার ৭টি কেন্দ্রে।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ৯৪ নমুনা পরীক্ষায় করোনার কোন পজেটিভ হয়নি। এটি ভাল খবর। এটি ধরে রাখতে হলে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। সেই সঙ্গে টিকা নিতে হবে। # 


পুরোনো সংবাদ

হাইলাইটস 5153870998814022893

অনুসরণ করুন

Logo

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item