বীরগঞ্জে গাছ লাগানোকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় একজন নিহত


হাসান জুয়েল,বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥-
দিনাজপুরের বীরগঞ্জে রাস্তার ধারে গাছ লাগানোকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মোঃ আবছার আলী (৫২)নামে একজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তার ছোট ভাই মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম (৪৫)।

নিহত মোঃ আবছার আলী এবং আহত মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের এলাইগাঁও গ্রামের মৃত লাল চান্দের ছেলে।


শুক্রবার দুপুর ২টায় উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের এলাইগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


আহত মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার বাড়ীর পাশে রাস্তার ধারে বেশ কিছু ইউক্লিপটাস গাছের চারা রোপন করেন তিনি। শুক্রবার সকালে প্রতিবেশি দবির উদ্দিনের ছেলে মোঃ তরিকুল ইসলাম (৪২) রোপনকৃত গাছের চারাগুলি তুলে নিয়ে যায়। এতে বাধা দিয়ে মোঃ তরিকুল পরিবারের লোকজন নিয়ে তাকে মারধর করে। পরে বিয়য়টি তিনি লিখিত ভাবে বীরগঞ্জ থানাকে অবহিত করেন। এরপর দুপুরে জুম্মার নামাজ পড়ে মসজিদ হতে বাড়ী ফেরার পথে মোঃ তরিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পরিবারের লোকজন তার এবং তার বড় ভাই মোঃ আবছার আলীর উপর লাঠি-সোটা দিয়ে হামলা চালায়। এতে দুই ভাই গুরুত্বর আহত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পর কর্তব্যরত চিকিসক মোঃ আবছার আলীকে মৃত ঘোষনা করেন বলে তিনি জানান।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মেডিকেল অফিসার ডা. মোঃ তানভীর তালুকদার জানান, হাসাপাতালে নিয়ে আসার আগেই মোঃ আবছার আলীর মৃত্যু হয়েছে। ময়না তদন্ত ছাড়া এই মুহুর্তে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা সম্ভব নয়। এ ঘটনায় মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম (৪৫)নামে একজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। 


ঘটনার পর থেকে মোঃ তরিকুল ইসলাম সপরিবারে পলাতক থাকায় তাদের সাথে চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।



এ ব্যাপারে বীরগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আব্দুল ওয়ারেছ বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অপরাধীদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।


বীরগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আব্দুল মতিন প্রধান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ এবং মামলা এবং প্রস্তুতি চলছে।


পুরোনো সংবাদ

নির্বাচিত 1304970357647336129

অনুসরণ করুন

Logo

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item