সৈয়দপুরে প্রথম দিনে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়েছে ৫ হাজার ৬৫৮ জন শিশুকে


তোফাজ্জল হোসেন লুতু, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:

 জাতীয় জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনের প্রথম দিনে গতকাল শনিবার (৫ জুন) নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা পাঁচটি ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকায় ৫ হাজার ৬ ৫৮জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়েছে। এদের মধ্যে ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ৫৭৫ জন এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৫ হাজার ৮৩ জন শিশু রয়েছে।

  উপজেলায় ইউনিয়নওয়ারি ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো শিশুর সংখ্যা হচ্ছে, ১ নম্বর কামারপুকুর ইউনিয়নের ৪৩৯ জন,  ২ নম্বর কাশিরাম বেলপুকুরে ৫৫৫ জন,  ৩ নম্বর বাঙ্গালীপুরে ২৬৯ জন,  ৪ নম্বর বোতলাগাড়ীতে ৬৭৬ জন এবং ৫ নম্বর খাতামধুপুরে ৩২৩ জন। এছাড়াও সৈয়দপুর পৌরসভা এলাকায় ৩ হাজার ৩৯৬ জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়। 

উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে ১২১ টি এবং পৌরসভা এলাকায় ৭৭ কেন্দ্রের মাধ্যমে ওই ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়েছে। এদের মধ্যে ৬ মাস বয়স থেকে এক বছর বয়সী শিশুদের একটি নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল এবং ১২ মাস অর্থাৎ এক বছর থেকে ৫ বছর বয়সী শিশুদের লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়।

 এবারে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনে উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ১৯ হাজার ২২৫ জনকে এবং সৈয়দপুর পৌরসভা এলাকার ৭৭ টি কেন্দ্রে ২৫ হাজার ৭৬৯ জন ভিটমিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।

 সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট (ইপিআই) মো. আবু তাহের সিদ্দিকীর জানান, উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ১২১টি  কেন্দ্রে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে দুইজন করে সর্বমোট ৩৯৬ জন স্বেচ্ছসেবক এবং ১৫ জন সুপারভাইজার  নিয়োজিত রয়েছেন। চলমান জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনে ৬ মাস বয়স থেকে ৫ বছর বয়সী শিশুদের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হচ্ছে।  গতকাল ৫ জুন থেকে শুরু হয়ে আগামী ১৯ জুন পর্যন্ত এ ক্যাম্পেইন চলবে।


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 8371580868463810858

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item