দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না কিশোরী সুরাইয়ার


তোফাজ্জল হোসেন লুতু,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি :

দাওয়াত  খেয়ে বাড়ি ফেরা হলোনা কিশোরী সুরাইয়া আক্তারের (১৬)। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মাইক্রোবাসের ধাক্কায় আহত হয়ে  রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে। এ সময় শিশুসহ আরও চারজন আহত হয়।আহতরা বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শহরের সৈয়দপুর -দিনাজপুর বাইপাস সড়কের কয়ামিস্ত্রিপাড়া বসুনিয়াপাড়া মোড়ে ওই দূর্ঘটনা ঘটে। দূর্ঘটনা নিহত তরুণীর সুরাইয়ার বাড়ি দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার রানীরবন্দর  দোবাড়িপাড়ায়। সে ওই এলাকার জামাল হোসেনের মেয়ে। 

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে থানা পুলিশ জানায়, ওই দিন শহরের গোলাহাট ওয়াপদা এলাকার পশ্চিমপাড়ায় একটি বিয়ে অনুষ্ঠানে দাওয়াত খেয়ে ব্যাটারিচালিত একটি রিক্সাভ্যানে করে বাড়ি ফিরছিল সুমাইয়াসহ তাঁর পরিবারের লোকজন। ওই ভ্যানে ৭/৮ জন যাত্রী ছিল। যাত্রী বোঝাই রিক্সাভ্যানটি বসুনিয়াপাড়া মোড়ে পৌছলে পিছন  দিক থেকে দ্রুতগতির একটি মাইক্রোবাস ভ্যানটিকে ধাক্কা দিলে ওই ভ্যানের সব যাত্রীরা এদিক সেদিক ছিঁটকে পড়েন। এতে সুরাইয়া আক্তার (১৬) তার মা সাবিনা ইয়াছমিন (৪০), ছোট ভাই শাহিন আহমেদ (৭), চাচাতো বোন সুরভী আক্তার (১৫) এবং ওয়াপদা এলাকার বাসিন্দা ভ্যানচালক আজাহার আলী (৩৫) আহত হন।

 খবর  পেয়ে  সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীসহ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের আশংকাজনক অবস্থায়  উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করায়। সেখানে সুরাইয়াসহ শিশু শাহিনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পরে রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুরাইয়ার আক্তারের মৃত্যু হয়।

 সৈয়দপুর থানার  অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. আতাউর রহমান জানান, মাইক্রোবাসটি আটক করা হয়েছে।


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 3840110529755681168

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item