সৈয়দপুর লিভার টিউমারে আক্রান্ত বুকুনের সুচিকিসায় যুবলীগ নেতা ফিরোজের আর্থিক সহায়তা প্রদান


তোফাজ্জল হোসেন লুতু, সৈয়দপুর(নীলফাারী)প্রতিনিধি :

 মানুষ যে মানুষের জন্য তা আবারো প্রমাণ করলেন নীলফামারীর সৈয়দপুর সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি এবং উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মো. মোস্তফা ফিরোজ।  তিনি এবারে আর্থিক সহায়তার হাত বাড়ালেন দীর্ঘদিন ধরে লিভার টিউমারে আক্রান্ত সবজি বিক্রেতা রাজকুমার বুকুনের (৩৬) সুচিকিৎসায়। সোমবার রাতে  যুব লীগ নেতা মোস্তাফা ফিরোজ শহরের হাতিখানা বিস্কুট ফ্যাক্টরি এলাকায় লিভার টিউমারে আক্রান্ত সবজি বিক্রেতা বুকুনের বাসায় গিয়ে তাঁকে চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। এ সময় তাঁর চিকিৎসার বিষয়েও সার্বিক  খোঁজ খবর নেন তিনি। 

 খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সৈয়দপুর শহরের উল্লিখিত এলাকার মৃত. রেখা শাহ ও মিঠুন ইরানীর ছেলে রাজকুমার বুকুন। তিনি পেশায় একজন খুচরা সবজি বিক্রেতা। স্ত্রী মায়ারানী, ছেলে রঞ্জন ও মেয়ে সন্তান পূজাকে নিয়ে তাঁর ছোট সংসার। সবজি বেচাবিক্রি করা আয়েই এক রকম ভালই চলছিল তাঁর সংসার। কিন্তু কয়েক মাস আগে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। সে সময় স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিয়ে এক রকম সুস্থও হয়ে ওঠেন তিনি। তবে মাঝে মাঝেই পেট ফুলে যাওয়া, খাওয়ায় অরুচিসহ অন্যান্য  শারীরিক সমস্যা দেখা দেয় তাঁর। অসুস্থতার কারণে তাঁর ক্ষুদ্র ব্যবসা সবজি বেচাকেনাও বন্ধ হয়ে পড়ে। দিনে দিনে তাঁর শারীরিক অসুস্থতা প্রখর হয়ে উঠে। পরবর্তীতে এলাকাবাসীর পরামর্শে রংপুরে লিভার বিশেষজ্ঞ ডা. নুরুল ইসলাম খানের শরনাপন্ন হন। সেখানে চিকিৎসকের পরামর্শে বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা বকুনের শরীরে ধরা পড়ে লিভার টিউমার। এমন পরিস্থিতিতে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন  তিনি। এতে সংসারের আয় রোজগার বন্ধ হয়ে পড়ে তাঁর। তাঁকে সুস্থ করতে ব্যবসার সব পুঁজি খরচ করে চলে তাঁর চিকিৎসা। তার চিকিৎসা ও ওষুধের ব্যয় মেটাতে  মারাত্মক সংকটের সম্মূখীন হয় পরিবারটি। এতে সংসারে দেখা দেয় মারাত্মক অর্থাভাব। স্ত্রী সন্তান নিয়ে রাজকুমার পড়ে চরম বেকায়দায়। এ অবস্থায় সকল পুঁজি শেষ করে সর্বশান্ত হয়ে পড়েন বুকুন। আর তার অসহায়ত্বের বিষয়টি জানতে পারেন হাতিখানা এলাকার স্বেচ্ছাসেবক যুবকরা। তাঁকে চিকিৎসার বিষয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন অনেকেই। আর তাদের মাধ্যমে বুকুনের অসুস্থার বিষয়টি জানতে পারেন সৈয়দপুর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মো.মোস্তফা ফিরোজ। তিনি গতকাল সোমবার রাতে হাতিখানা বিস্কুট ফ্যাক্টরী এলাকায় সবজি বিক্রেতা রাজকুমার বুকুনের বাসায় যান। এ সময় তিনি বুকুনের চিকিৎসার বিষয়ে খোঁজখবর নেন। তিনি বুকুনকে জানান, হতাশ হওয়া যাবে না। সাহসের সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলা করে চিকিৎসা চালিয়ে যেতে হবে। এ জন্য তিনি সব ধরনের সহযোগিতা করবেন বলে জানান। পরে প্রাথমিক পর্যায়ে তাঁর চিকিৎসা ও পরিবারের খরচের জন্য আর্থিক সহায়তা করেন। 

এ সময় উপজেলা যুব লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য জাহাঙ্গীর আলম টোকন, ৯ নং ওয়ার্ড যুব লীগ সভাপতিমো. শহিদুল ইসলাম লিটন,৯ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্র লীগের সহসভাপতি কাদের হোসেন, ইয়াং স্টার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সভাপতি বাপ্পী আরনাফসহ স্বেচ্ছাসেবক নাসিম, রাসেল, রতন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 আওয়ামী যুবলীগ নেতা মোস্তফা ফিরোজ বলেন, তিনি একজন মানুষ হিসেবে মানবিক কারণেই বুকুনের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাঁকে সুস্থ করতে সব ধরনের সহায়তা করা হবে। এ সময়  তিনি সকলের  আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেন আমার সামর্থ্য মতো  সমাজের গরীব, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সেবা করতে পারি। 


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 903137888804969986

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item