কিশোরগঞ্জে কয়েকদিনের টানা বর্ষনে আলু ক্ষেতে পচন দিশেহারা কৃষক

মোঃ শামীম হোসেন বাবু,কিশোরগঞ্জ(নীলফামারী)সংবাদদাতাঃ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় কয়েকদিনের টানা বর্ষনের ফলে জমিতে বৃষ্টির পানি জমে শতাধিক  কৃষকের আলু ক্ষেত পচেঁ গেছে। আলু ক্ষেত পচেঁ যাওয়ায় আবার নতুন করে জমিতে আলু রোপন করার চিন্তায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক আল ুচাষিরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে।
উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ উপজেলায় এবারে ৩২ হাজার হেক্টর জমিতে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।  অতিরিক্ত লাভের আশায় এ উপজেলার কৃষকরা আশ্বিন মাসের শুরু থেকে জমিতে আলু লাগানো শুরু করে।
কিন্তু গত কয়েকদিনের টানা বর্ষনের ফলে কৃষকের আলু ক্ষেতে পানি জমে আলু ক্ষেত পচেঁ নষ্ট হয়ে গেছে।
বাহাগিলি ইউনিয়নের উত্তর দুরাকুটি গ্রামের কৃষক বদরুল আলম বলেন, আমি এবার তিন বিঘা জমিতে আগাম আল ুচাষ করেছিলাম কিন্তু কয়েকদিনের টানা বর্ষনের ফলে আমার আলু ক্ষেত সম্পুন্ন পচেঁ নষ্ট হয়ে গেছে। তাই আমি ধার দেনা করে আবার জমিতে নতুন করে আলুর বীজ রোপন করব।
একই গ্রামের আলু চাষী শামীম হোসেন বাবু বলেন, আমি এবার ৭ একর জমিতে আগাম আলু লাগিয়েছি। এর মধ্যে আমার এক একর জমির সম্পুন্ন আলু পচেঁ গেছে। বাকি আলুর কপালে কি হবে সেটি আল্লাহ ছাড়া বলা যাচ্ছেনা।
কেশবা গ্রামের আলু চাষী লুৎফর রহমান লুতু বলেন, আমি ৬ একর জমিতে আগাম জাতের আলু চাষ করেছি। এখন পর্যন্ত আমার জমির দশ ভাগ আলু পচেঁ গেছে। বাকিটা আকাশের রোদ না হওয়া পর্যন্ত বোঝা যাচ্ছেনা।
কিশোরগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান বলেন, কয়েকদিনের টানা বর্ষনের ফলে জমিতে অতিরিক্ত পানি জমে থাকার কারনে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তবে যে সকল জমি উচুঁ সেগুলো জমিতে ক্ষতি কম হবে। আমরা প্রতিদিন মাঠ প্রর্যায়ে গিয়ে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান অব্যাহত রেখেছি । 

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 3039926352965907803

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

শিল্প-সাহিত্য

ফেসবুক লাইকপেজ

তারিখ অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item