৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে ১০ মাসের শিশুকে উদ্ধার করলো ডোমার থানা পুলিশ


আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>

নীলফামারীর ডোমার ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে খাদিজা খাতুন নামে ১০ মাসের শিশু কন্যাকে উদ্ধার করে মায়ের কাছে ফিরিয়ে দিলেন ডোমার থানা পুলিশ। 

শিশুটির মা জানান, উপজেলার পাঙ্গামটুকপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ মটুকপুর হাকিম উদ্দিন পাড়ার মৃত আবুবক্কর সিদ্দিকের ছেলে শাহীন আলমের সাথে একই এলাকার দক্ষিণ মটুকপুর টেপুপাড়া গ্রামের আনিছুর রহমানের কন্যা মুক্তি আক্তারের সহিত ২ বছর পূর্বে বিবাহ হয়। বিবাহের পর হইতে বিভিন্ন কারণে মুক্তি আক্তারকে শশুরবাড়ীর লোকজন শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন করতো। এরই মধ্যে গত ১০ মাস পূর্বে মুক্তির কোল জুড়ে আসে একটি কণ্যা সন্তান। সংসার চলাকালীন সময়ে গত রোববার দুপুরে তার স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন মুক্তিকে মারধর করে তার শিশু বাচ্চাটি কেড়ে নিয়ে জোর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। ২দিন ধরে শিশু খাদিজা মাকে ছাড়াই তার বাবার বাড়িতে ছিল। নিরুপায় হয়ে মুক্তি মঙ্গলবার বিকালে জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমানের নির্দেশনায় এসআই হিমেল আহমেদ ও সঙ্গীয় ফোর্স মুক্তির স্বামী শাহীন আলমের বাড়িতে গিয়ে শিশু খাদিজাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে ডোমার থানার নারী, শিশু, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধি সার্ভিস ডেস্কের মাধ্যমে জিডি মূলে অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান শিশু খাদিজা খাতুনকে তার মায়ের হাতে তুলে দেন। ২দিন পর কোলের শিশু সন্তানকে ফিরে পেয়ে শিশুটির মা মুক্তি আক্তার আনন্দে আত্নহারা হয়ে পড়ে এবং  ডোমার থানা পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 3930459862352902187

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item