কিশোরগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে পুড়ে গেছে ৩০ দোকানঘর, ক্ষয়ক্ষতি ২ কোটি টাকা


মোঃ শামীম হোসেন বাবু,কিশোরগঞ্জ(নীলফামারী)সংবাদদাতাঃ
নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বড়ভিটা  বাজারে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ২১ টি দোকানঘর ও দোকানের রক্ষিত মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আজ মঙ্গলবার সকাল ৭ টার দিকে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান প্রায় ২ কোটি টাকা। 

সরেজমিনে গিয়ে প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে এবং অনুসন্ধানে জানা গেছে, বড়ভিটা বাজারের ছাদাকাত মাষ্টারের কাপরের দোকানের আইপিএসের ব্যাটারী বাষ্ট হয়ে আগুনের সুত্রপাত হয়। মুহুত্বের মধ্যে আগুনের ল্যালিহান শিখা চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ, জলঢাকা ও নীলফামারীর ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। কিন্তু ফায়ার আসার আগেই ২১ টি দোকানঘর ও দোকানে থাকা মালামাল পুরে ছাই হয়ে যায়। 


নীলফামারী ফায়ার সার্ভিসের উপ সহকারী পরিচালক, আমিরুল ইসলাম সরকার বলেন, বড়ভিটা বাজারে আগুন লাগার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনি। কিন্তু ফায়ার সার্ভিস আসার আগেই বড়ভিটা বাজারের ২১ টি দোকান ও দোকানে রক্ষিত মালামাল পুড়ে গেছে। প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে, ছাদাকাত ষ্টোরে আইপিএস থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়। এতে ছাদাকাতের দোকানের প্রায় ৩০ লাখ টাকার মালামাল, রিপন ফার্মেসির ২০ লাখ টাকার ঔষুধ, নাহিদ ইলেট্রনিক্য্র এর ২৫ লাখ টাকার মালামাল ও মোবারক ষ্টোরের ২৭ লাখ টাকার মালামালসহ মোট ২১ টি দোকানের প্রায় ২ কোটি টাকার মালামাল আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কিশোরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম বারী পাইলট, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোকসানা বেগম, উপজেলা আওয়ামীলের সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল সম্পাদক মশিয়ার রহমান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম বাবু। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোকসানা বেগম বলেন, আগুনে পুড়ে যাওয়া দোকান মালিকদের তালিকা করে জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো হবে। 


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 5534102484777148714

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item