নীলফামারীতে সড়ক দূর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় অপহরণ ও হত্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এলাকাবাসীর মানবনব্ধন


নির্ণয়,নীলফামারী॥
জেলার জলঢাকায় বন্ধুর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রী রুবাইয়া ইয়াসমিন রিমুর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে অপহরণ ও হত্যা মামলায় মানবিক সহায়তাকারী বাহজাত জুলফিকার রিজভীকে জড়ানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রিজভীর সহপাঠি বন্ধু এবং এলাকাবাসীর ব্যানারে  সোমবার(৮ মার্চ/২০২১) বেলা ১১টার দিকে জেলা শহরের বঙ্গবন্ধু চত্বরে ঘণ্টাব্যাপী ওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ওই মামলা থেকে রিজভীর নাম প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। পরে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবরে পৃথক স্মারকলিপি প্রদান করে এলাকাবাসী। 

মানববন্ধন শেষে সেখানে অনুষ্ঠিত সমাবেশে এলাকাবাসীর পক্ষে জেলা সদরের কচুকাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আনিছুর রহমান বলেন,‘রিজভীর মানুষের বিপদে এগিয়ে যাওয়া তার অভ্যাস। সেদিন সড়ক দূর্ঘটনার ওই খবর পেয়ে সহযোগিতার জন্য এগিয়ে যায়। মানবিক সহযোগিতায় এগিয়ে গিয়ে ছাত্রীর বাবার দায়ের করা মামলায় অপহরণ ও হত্যা মামলার আসামী হয়েছে সে। এমনটি হলে মানুষের বিপদে কেউ এগিয়ে আসবে কিভাবে? আমরা ওই মামলা থেকে নির্দোষ রিজভীর নাম প্রত্যাহার চাই। 

’রিজভীর সহপাঠি রেজোয়ান হাসান বলেন, ‘রিজভী নীলফামারী সরকারি কলেজ থেকে এবারে এইচএসসি পাশ করেছে। এলাকার ছোটভাই হিসেবে দূর্ঘটনার শিকার এলাকার বড় ভাই ফয়সাল এবং রিমু আপুকে সহযোগিতার জন্য ছুটে যায় হাসপাতালে। অথচ তার বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা করা হয়েছে। আমরা ওই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার চাই।’

উলেখ্য, গত ১ মার্চ সোমবার সকাল ৯টার দিকে মোটরসাইকেলে বেড়াতে গিয়ে জেলার জলঢাকা উপজেলার রাজারহাট নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হন ফজলুল করিম ফয়সাল ও রুবাইয়া ইয়াসমিন রিমু। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে জলঢাকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। পরে রিজভীর সহযোগিতায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরে রিমুর মৃত্যু হয়। এঘটনায় রাত ১২টার দিকে রিমুর বাবা মেয়েকে অপহরণ এবং মোটরসাইকেলে থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার অভিযোগে ফয়সাল ও রিজভীকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

নিহত রিমু নীলফামারী জেলা সদরের কচুকাটা ইউনিয়নের তালুক মানুষমারা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে। সে রংপুর কারমাইকেল কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিল। ফয়সাল একই ইউনিয়নের ব্রমতল গ্রামের মো. আব্দুল্লাহর ছেলে এবং ঢাকার সোহরাওয়ার্দী কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। অপরদিকে রিজভী কচুকাটা বন্দরপাড়া গ্রামের  মৃত জাহেদুল ইসলামের ছেলে।

এবিষয়ে জলঢাকা থানার ওসি মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন,‘এ ঘটনায় মেয়ের বাবা জলঢাকা থানায় একটি অপহরণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। লাশের ময়না তদন্ত হয়েছে, মামলাটি তদন্তাধীন আছে। #


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 7282149524793983051

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item