নিখোঁজের ৩ দিন পর ডিমলায় গৃহবধুর লাশ উদ্ধার,স্বামী আটক


ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়,নীলফামারী\
নিখোঁজের তিনদিন পর ভুট্টা ক্ষেত থেকে উদ্ধার করা হলো এক গৃহবধু লাশ। নীলফামারী ডিমলা উপজেলায় একটি ভুট্টা ক্ষেত থেকে লাভলী বেগম (৩০) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধু পাশ্ববর্তী ডোমার উপজেলার গোমনাতী ইউনিয়নের পূর্ব আমবাড়ী গ্রামের রশিদুল ইসলামের মেয়ে। এ ঘটনায় লাভলী বেগমের স্বামী তাইবুল ইসলাম(৩৫)কে আটক করেছে পুলিশ।

 বুধবার(৩ মার্চ/২০২১) সন্ধ্যায় ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের নিজ সুন্দর খাতা ফরেস্ট অফিস সংলগ্ন একটি ভুট্টা ক্ষেত থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। 

সংবাদ পেয়ে ডিমলা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশের পরিচয় জানার চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে দুপুর ৩টার দিকে পাশ্ববর্তী ডোমার উপজেলার গোমনাতী ইউনিয়নের পূর্ব আমবাড়ী গ্রামের এক বৃদ্ধ এসে লাশ সনাক্ত করে বলেন, এটি আমার মেয়ে লাভলী বেগমের লাশ। সে তিনদিন থেকে স্বামীর বাড়ী থেকে নিখোঁজ ছিল। লাভলী বেগমের ৬ বছরের লাবিব নামে একটি ছেলে রয়েছে। 

বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সহকারী পুলিশ সুপার (ডোমার-ডিমলা সার্কেল) জয়ব্রত পাল, ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) সিরাজুল ইসলাম, ডিবি পুলিশ ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) রংপুরের টিম। 

এ ঘটনায় ডোমার উপজেলার গোমনাতী ইউনিয়নের দক্ষিন আমবাড়ী গ্রাম থেকে নিহত গৃহবধুর স্বামী তাইবুল ইসলাম (৪০) কে আটক করে পুরিশ।

এলাকাবাসীর ধারণা মেয়েটিকে ফরেস্টের ভিতরে ধর্ষণের পরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশটি ভুট্টা ক্ষেতে লুকিয়ে রেখে অপরাধীরা পালিয়ে যায়। 

ডিমলা থানার অফিসার ইনর্চাজ (তদন্ত) সোহেল রানা গৃহবধুর স্বামী তাইবুল ইসলামকে আটকের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, আমাদের তদন্ত কাজ চলছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কোন মন্তব্য করা যাচ্ছে না। 

এ ব্যাপারে ডিমলা থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক তদন্তে লাভলী শ্বাসরোধ করে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার(৪ মার্চ) নীলফামারী আধুনিক হাসপাতালে লাশের ময়না তদন্ত সম্পন্ন করা হবে। # 


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 3647784085201646431

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item