ডোমার পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চায় আ’লীগের নেতা কালাম


আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>

নীলফামারীর জেলার ডোমার উপজেলার পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী, বিশিস্ট রাজনীতিবীদ সাবেক ছাত্রনেতা আবুল কালাম আজাদ নৌকার মাঝি হয়ে ডোমার পৌর এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। 

আবুল কালাম আজাদ ডোমার পৌর এলাকার ১নং ওয়ার্ডের পূর্ব কলেজপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস সোবহান মাষ্টারের তৃতীয় পুত্র। তিনি ১৯৭৯ সালের জাতীয় নির্বাচনের মধ্য দিয়ে তৎকালীন জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মরহুম এ্যাডভোকেট ইছাহাক আলী সাহেবের হাত ধরে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে উৎজীবিত হয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগে যোগদান করেন। 

প্রথম রাজনৈতিক জীবনে ১৯৮১ সালে ডোমার বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দ্বায়ীত্ব পালন করেন। ১৯৮৩ সালে ডোমার থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হয়। অপরদিকে ১৯৮৪ সালে ডোমার থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন এবং ১৯৮৫ সালে ডোমার থানা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসাবে দ্বায়ীত্ব গ্রহন করেন। সততা ও নিষ্ঠার সাথে রাজনৈতিক জীবন চলাকালীন সময়ে ১৯৮৭ সালে ডোমার থানা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ন আহবায়কের দায়ীত্ব পান। ১৯৯২ সালে ডোমার থানা আ’লীগের সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। ১৯৯৭ সালে ডোমার উপজেলা আ’লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নির্বাচিত হন। বর্তমানে ডোমার উপজেলা বাংলাদেশ আ’লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এর দাায়ীত্ব পালন করছেন তিনি। 

সাবেক ছাত্রনেতা আবুল কালাম আজাদ জানান, রাজনৈতিক জীবনে বিভিন্ন সময়ে সৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে আমি সক্রিয় ভুমিকা পালন করি। সে সময় আমার নামে একাধীক মিথ্যা মামলা ও হামলার শিকার হয়ে অদ্যবধি জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে লালন করে দলের সাথে রয়েছি। গণতন্ত্রের মানষ কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সোনার বাংলা গড়তে ডোমার পৌর সভাকে মডেল পৌরসভা হিসাবে রুপান্তিত করতে ২০২১ সালের ডোমার পৌর নির্বাচনে আমি আ’লীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন প্রত্যাশা করি।

#


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 1573884335338773200

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item