সৈয়দপুরে পৌর বিএনপির আহবায়ক আটক -প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


তোফাজ্জল হোসেন লুতু,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি: 

নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য ও পৌর বিএনপির আহ্বায়ক শেখ বাবলুকে কে বা কারা তুলে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে সৈয়দপুর রাজনৈতিক জেলা বিএনপি’র এক সংবাদ সম্মেলনে ওই অভিযোগ করা হয়। শহরের শহীদ ডা. জিকরুল হক সড়কে সংগঠনের নিজস্ব কার্যালয়ে ওই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।   

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি সৈয়দপুর পৌর শাখার আহবায়ক শেখ বাবলু। তিনি সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির একজন সদস্য। তাকে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে শহরের নয়াটোলা এলাকার শ্বশুর বাড়ি থেকে কে বা কারা তুলে দিয়ে যায়। অথচ তার নামে স্থানীয় থানায়  কিংবা আদালতে কোন  রকম মামল মোকদ্দমা নেই। আমরা এখন পর্যন্ত তাঁর কোন রকম অবস্থান জানতে পারেনি।  মূলতঃ আগামি ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশকে বিনষ্ট ও সাধারণ ভোটারদের মধ্যে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টির উদ্দেশ্যে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাকে। এছাড়াও  সাদা পোশাকে স্থানীয় বিএনপির  বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীর বাড়িতে গিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ বলেন, সৈয়দপুর একটি উর্দূভাষী অধ্যূষিত শহর। আর তাই ক্ষমতাসীন দলের নেতারা নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী পথসভাগুলোতে উর্দূভাষীদের উদ্দেশ্য করে ধমক দিয়ে বক্তব্য রাখছেন। এতে সৈয়দপুরের মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। আর ওই আতঙ্ক বিদ্যমান থাকলে কখনই সুষ্ঠু,অবাধ ও নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্ভব নয়। ভোটাররা যাতে ভয়ে ভোট কেন্দ্রে না যায়, সে জন্যই এ ধরনের ধমকি হুমকি  প্রদর্শন করছেন ক্ষমতাসীন দলের লোকজন। যা নির্বাচনী আচরণ বিধির সম্পূর্ণ পরিপন্থী। বিষয়গুলো আমরা লিখিতভাবে নির্বাচন কমিশনকে অবহিত করেছি। কিন্তু তারা কোন রকম ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।

 সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন স্থানীয় সরকার নির্বাচন উল্লেখ করে এ নির্বাচনে ভোটাররা যাতে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন তার ব্যবস্থা নেওয়া আহবান জানান বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। তারা আরো বলেন, আমরা নির্বাচনের শুরু থেকে  নির্বাচনী আচরণ-বিধি মেনে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে আসছি। অথচ নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা মানা হচ্ছে না কোন আচরন বিধি। তারা র গভীর রাত পর্যন্ত ৮-১০টি মাইক এক সাথে ব্যবহার করে পথসভা করছে। পথসভা থেকে বিভিন্ন ধরনের হুমকিধমকিমূলক বক্তব্য দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে বাইরে থেকে লোকজন এনে ১০০/১৫০ মোটরসাইকেল ও ১৩/১৪টি পিকআপে শোডাউন করা হচ্ছে।

 সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন সৈয়দপুর রাজনৈতিক জেলা বিএনপির আহবায়ক আলহাজ্ব মো. আব্দুল গফুর সরকার, বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট এস. এম.ওবায়দুর রহমান, সদস্য সচিব পৌর কাউন্সিলর শাহিন আকতার ও মেয়র প্রার্থী বিএনপি নেতা আলহাজ্ব মো. রশিদুল হক সরকার।    

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 8203831861787946036

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item