ফেব্রুয়ারীকে রংপুর পবিস-২ এর বকেয়া আদায়ের মাস ঘোষণা


হাবিবুর রহমান সেলিম, পাগলাপীরঃ
রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সিনিয়ার জেনারেল ম্যানেজার মোঃ হারুন-অর-রশিদ ফেব্রুয়ারী ২০২১ কে বকেয়া আদায়ের মাস ঘোষণা করেছেন। বর্তমানে রংপুর পবিস-২ এর প্রায় ১৫ কোটি টাকা বিভিন্ন গ্রাহকদের কাছে বকেয়া রয়েছে। উক্ত বকেয়া আদায়ের সার্থে বিদ্যুৎ ও জ্বালানী মন্ত্রনালায় ও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুয়ান বোর্ড (বাপবিবোর্ড) এর নিদের্শনা মোতাবেক বকেয়া আদায়ের লক্ষ্যে সিনিয়ার জেনারেল ম্যানেজার নানা পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। বকেয়া আদায়ের লক্ষ্যে গৃহিত পদক্ষেপ গুলো হলো ঃ (ক) “সিনিয়ার জেনারেল ম্যানেজার প্রতিদিন সকাল বেলায় বকেয়া আদায়ের টিম বের করে দেন এবং দিন শেষে বকেয়ার অগ্রগতি সর্ম্পকে সংশ্রিষ্ট অফিসারদের কাছ থেকে প্রতিবেদন নেন। (খ) গ্রাহকদের সচেতন করার লক্ষ্যে প্রতিনিয়ত মাইকিং করা হয়। (গ) প্রতি শনিবার বিছিন্ন গ্রাহকদের তালিকা অনুযায়ী বকেয়া আদায় কার হয়। (ঘ) ডিএনপি ক্রাস প্রোগ্রামের মাধ্যমে লাইন বিছিন্ন সহ বকেয়া আদায়ের যাবতীয় কাজ করা হয়। (ঙ) মাসের ৫তারিখ এবং ১৫ তারিখ গ্রাহকদের বকেয়া সর্ম্পকে দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে পর্যালোচনা সভা করা হয়। (চ) গ্রাহকরা যেন সহজেই বিল পরিশোধ করতে পারে এ জন্য ইতি মধ্যে বাপবিবোর্ড এর নিদের্শ মোতাবেক অনেকগুলো এজেন্ট পয়েন্ট খোলা হয়েছে এবং আরো প্রয়োজনীয় সংযোগ এজেন্ট খোলা হবে। (ছ) সপ্তাহে এক দিন গ্রাহক সেবারে মান বৃদ্ধির জন্য এলাকা ভিত্তিক মোটিভিশন সভা করা হয় এবং সমস্যা গুলো পরবর্তী সপ্তাহের মধ্যে সমাধান করা হয়”।  বিদায় গ্রাহকদের সাথে কথা বলে জানা যায় আগের তুলনায় বর্তমান রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সেবা অনেক ভালো এবং সিনিয়ার জেনারেল ম্যানেজার হারুন-অর-রশিদ সহ  অনান্য অফিসার গন গ্রাহকদের প্রতি অনেক আন্তরিক হওয়ায় তাদেরকে ধন্যবাদ জানান। রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর পাগলাপীর রংপুর সদর দপ্তরে জেনারেল ম্যানেজার এর কার্যালয়ে বুধবার (১০ই ফেব্রুয়ারী) সকালে সৌজন্য মুলক সাক্ষাতে সাম্প্রতিক সময়ে দেশের অনান্য বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে সিনিয়ার জেনারেল ম্যানেজার হারুন-অর-রশিদ সাংবাদিককে বলেন প্রতিদিন গ্রাহকদের বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনা রক্ষার সার্ত্থে গন-শোনানী, লিপলেট, ব্যানার, মাইকিং, এমনকি জাতীয় স্থানীয় সংবাদ পত্রে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় এবং সমিতির সংশ্রিষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারীদের দায়িত্ব নিয়ে ঝুকিপূর্ন লাইন চিহ্নিত করে সমাধান করার জন্য ব্যাবস্থা নিয়েছে এবং যেকোন জায়গায় যেকোন সময় ঝুকির্পূন লাইন চোখে পড়লে তাৎক্ষনিক ভাবে উনাকে অবহিত করার জন্য আহবান জানান। সৌজন্য মুরক সাক্ষাতের সময় অনান্যদের উপস্থিত ছিলেন ডিজিএম (কারিগরী) মোঃ হাদিউজ্জামান, এজিএম (ইএনসি) আহসান হাবিব, এজিএম (ওএন্ডএম) আহসান কবীর, এজিএম (প্রশাসন/এইচআর) ইমরান কাজল, এজিএম (এমএস) গোলাম মনিরুজ্জামান ও এজিএম (অর্থ) কামরুল হাসান সহ সাংবাদিক বৃন্দরা। 


পুরোনো সংবাদ

রংপুর 1062965389046650078

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item