অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে ভূমি কর্মকর্তার অফিস কক্ষে হামলা ও ভাংচুর


মেহেদী হাসান উজ্জল,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে হাট চান্দিনায় অবৈধভাবে নির্মিত দোকান উচ্ছেদ করাকে কেন্দ্র করে ভূমি কর্মকর্তার অফিস কক্ষে হামলা ও ভাংচুর করে অফিস সহায়কসহ হাটের টোল আদায়কারীকে মারপিট। বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার মাদিলা বাজারে বেতদিঘী ইউনিয়ন ভূমি অফিসে এই হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো.আব্দুস সাদেক বাদী হয়ে ওই অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় একটি মমলা দায়ের করেছেন। একই সাথে হাট ইজারাদার আমিনুল ইসলাম একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা গেছে,উপজেলার বেতদিঘি ইউনিয়নের মাদিলা হাট বাজার এলাকায়,হাট চান্দিনার জমিতে স্থানীয় কতিপয় ব্যাবসায়ীরা অবৈধভাবে পাকা দোকান ঘর নির্মানের কাজ করছিলো। বিষয়টি বেতদিঘি ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো.আব্দুস সাদেক জানতে পেরে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রিয়াজ উদ্দিন ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) কানিজ আফরোজকে অবহিত করলে,উপজেলা নির্বাহী অফিসার রিয়াজ উদ্দিন ওই অবৈধ দখলদারদেকে লিখিত ও মৌখিকভাবে স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন। নির্দেশ অমান্য করে অবৈধ দখলদারা দোকান নির্মানের কাজ চালিয়ে যেতে থাকলে,গত ০৪ ফেব্রয়ারী বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রিয়াজ উদ্দিন ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) কানিজ আফরোজ ঘটনা স্থলে গিয়ে নির্মানাধিন স্থাপনা ভেঙ্গে দিয়ে চলে আসলে, পরে অবৈধভাবে নির্মিত দোকান উচ্ছেদ করাকে কেন্দ্র করে অবৈধ দখলদাররা বেতদিঘি ভূমি কর্মকর্তার অফিস কক্ষে ঢুকে হামলা ও অফিসের আলমারী ভাংচুর করে কাগজ পত্র তছনছ করেন এবং অফিস সহায়ক আমজাদ হোসেনসহ হাটের টোল আদায়কারী বেলাল হোসেনকে মারপিট করেন। এঘটনায় ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো.আব্দুস সাদেক বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতেই ওই হামলাকারী অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় একটি মমলা দায়ের করেন। একইসাথে হাট ইজারাদার আমিনুল ইসলামও একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

মামলার বাদি ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা আব্দুস সাদেক বলেন, হামলাকারীরা ভূমি অফিসের সরকারী ফাইলপত্রসহ অফিসে থাকা খাজনা আদায়ের নগদ টাকাও ছিনতাই করে নিয়ে গেছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রিয়াজ উদ্দিন বলেন, হাট চান্দিনায় কিছু লোকজন অবৈধভাবে পাকাঘর স্থাপনা তৈরীর কাজ করছে এমন খবর পেয়ে তাদেরকে কয়েকবার স্থাাপনা সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিলেও তারা নির্দেশ অমান্য করে স্থাপনা তৈরী কাজ করেন। হাট চান্দিনার ঢিপিতে সরকারী লিজ ছাড়াই স্থায়ীভাবে কোনো নির্মান কাজ করা সম্পুর্ন বে আইনী। তাই তাদের স্থাপনা ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। 

ফুলবাড়ী থানার অফিসার্স ইনচার্জ ফখরুল ইসলাম বলেন বেআইনী জনতা দলবদ্ধ হয়ে অনধীকার ভূমি অফিসে প্রবেশ  করে সরকারী কাজে বাধাঁ প্রদান, ও নগদ টাকা চুরি এবং প্রাণ নাশের হুমকি প্রদানের অপরাধে,অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে থানায় একটি মমলা দায়ের হয়েছে। একই সাথে হাট ইজারাদার একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।


পুরোনো সংবাদ

নির্বাচিত 2651593664068615556

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item