করোনা টিকার প্রথম দিন নীলফামারী জেলায় টিকা গ্রহন করেছে ২৩০ জন


ইনজামাম-উল-হক নির্ণয়,নীলফামারী॥
নীলফামারী জেলায় আজ রবিবার(৭ ফেব্রুয়ারী/২০২১) সাতটি কেন্দ্রে ২৩০ জন টিকা গ্রহন করেছেন। এদের মধ্যে নারী ৪১জন নারী রয়েছেন। গ্রহিতাদের মধ্যে কারো কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হয়নি বলে জানায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

এ উপলক্ষে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে উদ্বোধনী সভা অনুষ্ঠিত হয়। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সারাদেশে কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এরপর এ জেলায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন নীলফামারী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর।

এসময় জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান(বিপিএম,পিপিএম), সিভিল সার্জন ডাঃ মো. জাহাঙ্গীর কবির, নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ প্রমুখ। 

বেলা ১১টা ২০ মিনিটে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে জেলার টিকাদান কর্মসূচির সূচনা করা হয়। সেখানে প্রথম টিকা গ্রহন করেন ওই হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স জেসমিন নাহার সেতু। টিকা নেয়ার পর তিনি ভি-চিহৃতি দেখিয়ে জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু শ্লোগান দেন। 

এরপর দৈনিক প্রথম আলোর প্রতিনিধি মীর মাহমুদুল হাসান আস্তাক দ্বিতীয়, নীলফামারী সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাহমুদ-উন-নবী তৃতীয়, সিভিল সার্জন ডাঃ মো. জাহাঙ্গীর কবির চতুর্থ এবং ৭৯ বছরের আব্দুস সামাদ পঞ্চম টিকাটি গ্রহনের পর পুলিশ, গণমাধ্যমকর্মী ও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ টিকা গ্রহন করেন। জেলায় গণমাধ্যম কর্মীদের মধ্যে দ্বিতীয় টিকাগ্রহিতা দৈনিক কালের কণ্ঠের প্রতিনিধি ভুবন রায় নিখিল। একইসাথে জেলার সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স টিকাদান কেন্দ্রে কর্মসূচি শুরু হয়।

জেলার ছয় উপজেলার মধ্যে সদরের নীলফামারী জেনারেল হাসপাতাল কেন্দ্রে ১০০ জনের মধ্যে ২৪ জন নারী, ডোমারে ৩০ জনের মধ্যে ৩ জন নারী, ডিমলায় ১০ জনের মধ্যে ১ জন নারী, জলঢাকায় ৩০ জনের মধ্যে ৪ জন নারী, কিশোরীগঞ্জে ৪০ জনের মধ্যে ৪ জন নারী এবং সৈয়দপুরে ২০ জনের মধ্যে ৫ জন নারী টিকা গ্রহন করেন।

এ জেলায় এপর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৩ হাজার ৭০৮ জন। এর মধ্যে জেলা সদরে ১ হাজার ২৫০, ডোমারে ৩৬৪, ডিমলায় ৩১০, জলঢাকায় ৪০১, কিশোরীগঞ্জে ৪৫০ এবং সৈয়দপুরে ৯৩৩ জন। জেলায় প্রথম ধাপে ৬০ হাজার ডোজ টিকা পাওয়া গেছে। ওই টিকা ১৫ ক্যাটাগরির প্রথম সারির ৩০ হাজার জনকে প্রদান করা হবে। এজন্য জেলার সাতটি কেন্দ্রে ২২টি বুথ স্থাপন করা হয়েছে। এর মধ্যে জেলা সদরের নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে ১১টি, অন্য পাঁচ উপজেলায় দুইটি করে এবং সৈয়দপুর সেনানিবাস হাসপাতালে একটি রয়েছে। 

সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর কবির বলেন, প্রথম দিনে টিকা প্রদান কার্যক্রম সুষ্ঠভাবে শেষ হয়েছে। টিকা গ্রহিতাদের মধ্যে কারো কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার খবর পাওয়া যায়নি। 

নীলফামারী জেলায় প্রথম টিকা গ্রহনকারী হিসাবে সিনিয়র নার্স জেসমিন নাহার সেতু বলেন, জেলার প্রথম টিকা গ্রহনকারি হিসেবে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। #


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 5008008777283678936

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item