প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা জমজমাট


তোফাজ্জল হোসেন লুতু, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি :

 নীলফামারীর প্রথম শ্রেণির সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন আগামী ১৬ জানুয়ারী। এ নির্বাচনে মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদের প্রার্থীদের মধ্যে গতকাল বুধবার (৩০ ডিসেম্বর)  প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আর প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণায় নেমে পড়েছেন পুরোদমে।

 সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে সর্বমোট ১১৪ জন  প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়েছেন। এদের মধ্যে মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৮৮ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ২১ জন প্রার্থী রয়েছেন। 

 মেয়র পদের প্রার্থীরা হলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদ্য প্রয়াত আখতার হোসেন বাদলের সহধর্মিনী রাফিকা আখতার জাহান বেবী (প্রতীক নৌকা), জাতীয় পার্টি (এ) মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব মো. সিদ্দিকুল আলম সিদ্দিক (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সমর্থিত প্রার্থী হাফেজ মাওলানা মো. নুরুল হুদা (হাতপাখা) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী  বর্তমান পৌর মেয়র বিএনপি নেতা মো. আমজাদ হোসেন সরকার (নারিকেল গাছ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রবিউল আউয়াল রবি (মোবাইল)।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) থেকে সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে এ্যাডভোকেট এস. এম. ওবায়দুর রহমানকে দলীয় মনোনয়ন প্রদান করা হয়। তিনি যথারীতি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিল করলেও গত ২৯ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে তাঁর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। এতে করে এবারে এ নির্বাচনে বিএনপির কোন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেই।

গত বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমাকারী প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ প্রদান করা হয়। নীলফামারী জেলা নির্বাচন অফিসার ও সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ফজলুল করিম প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ প্রদান করেন। এ সময় সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও পৌরসভা নির্বাচনে সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. রবিউল আলম উপস্থিত ছিলেন। ওই দিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রতীক বরাদ্দ কার্যক্রম চলে।

 নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায়, যে সব প্রতীকের জন্য একাধিক প্রার্থীর আবেদন ছিল তা লটারি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নিস্পত্তি করা হয়। 

এদিকে, প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর পরই প্রার্থীরা প্রচার প্রচারণায় নেমে পড়েন। যে সব প্রতীকের জন্য একক প্রার্থী ছিল তারা আগেইভাগেই পছন্দের প্রতীক দিয়ে লিফলেট, পোষ্টার তৈরি করে রাখেন। আর গত বুধবার প্রতীক বরাদ্দ পাওয়া মাত্রই আগেই তৈরি করে রাখা লিফলেট নিয়ে গণসংযোগে নেমে পড়েন প্রার্থীরা। সেই সঙ্গে নিজের ছবি ও প্রতীক সম্বলিত পোস্টার ঝুঁলানোর কাজ শুরু করেন। পাশাপাশি মাইকেও প্রচার-প্রচারণা চালাতে থাকেন সমানতালে। বেলা ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রার্থীদের প্রতীকে ভোট চেয়ে মাইকে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চলছে।  ফলে গত বুধবার বিকেলে থেকেই সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা জমজমাট হয়ে উঠে গোটা পৌরসভা এলাকা।   

সৈয়দপুর পৌরসভা ১৫টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ৯৯ হাজার ১৮৮। এবারই প্রথম সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।


পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 6508338387617541741

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item