পীরগাছায় গাভী পালন করে ভাগ্য বদলে গেছে শাহিনুর বেগমের


পীরগাছা(রংপুর)প্রতিনিধিঃ

রংপুরের পীরগাছায় গাভী পালন করে শাহিনুর বেগমের ভাগ্য বদলে গেছে। এখন তার সংসারে এনে দিয়েছে সচ্ছলতা। প্রতিবেশী ও ক্ষুদ্র সার ব্যবসায়ী স্বামীর পরামর্শকে কাজে লাগিয়ে সামান্য পুঁিজ নিয়ে শুরু করে গাভী পালন। আর বদলে যেতে থাকে তার ভাগ্যের চাকা। শাহিনুর বেগম গাভীর খামার করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। 


জানা গেছে, উপজেলার তাম্বুলপুর ইউনিয়নের দিকটারি গ্রামের ক্ষুদ্র সার ব্যবসায়ী স্বামী হাবিবুর রহমান এর স্ত্রী শাহিনুর বেগম অল্প পুঁিজ দিয়ে প্রথমে একটি অট্রেলিয়ান জাতের বকনা বাছুর ক্রয় করেন। অনেক পরিশ্রমের ফসল হিসেবে তার খামারে ্এখন তিনটি উন্নত জাতের গাভী ও তিনটি বড় আকারের  গরু রয়েছে। আগের তুলনায় বর্তমানে তার দুই ছেলে ও স্বামী সংসার নিয়ে ভালই দিন কাটছে। তিনি জানান, সরকারি ভাবে কোন আর্থিক সহযোগিতা পেলে গরুর খামারে পরিধি আরো বাড়াতে পারবো।   


শাহিনুর বেগম এর স্বামী ক্ষুদ্র সার ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান জানান, ১৯৮৭সালে পারিবারিকভাবে আমরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই। কিছুদিন যেতে না যেতেই কি করবো এই ভেবে হতাশায় ভূগতে থাকি। অবশেষে সিন্ধান্ত নেই ব্যবসা করবো। উপজেলার তাম্বুলপুর বাজারে সার ব্যবসা শুরু করলেও তেমন সফল হতে পারিনি। পরে স্ত্রী পরামর্শ সাপেক্ষে গাভী পালনের উদ্দেশ্যে একটি উন্নত জাতের বকনা বাছুর ক্রয় করে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। বর্তমানে তিনটি গাভী থেকে প্রতিদিন প্রায় ৩০ লিটার দুধ বিক্রয় করে ভাল লাভবান হচ্ছি। ধীরে ধীরে খামারের পরিধি বাড়িয়ে দিচ্ছি।

উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা শামছুজ্জামান এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমার সকল খামারিদের বিভিন্ন ধরনের পরামর্শ দিচ্ছি। এছাড়াও মাঠে আমাদের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ খামারিদের নিয়মিত খোঁজ খবর নিয়ে তারার পরামর্শ প্রদান করছে।


পুরোনো সংবাদ

রংপুর 4505672462155505079

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item