বেরোবিতে পতাকা অবমাননা, থানায় অভিযোগ


রংপুর প্রতিনিধিঃ

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) মহান বিজয় দিবসে জাতীয় পতাকার অবমাননার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮ শিক্ষকসহ নয় জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় মেট্রোপলিটন পুলিশের তাজহাট থানাতে অভিযোগ দায়ের করেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি আরিফুল ইসলাম আরিফ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাজহাট থানার ওসি তদন্ত রবিউল ইসলাম।

অভিযোগপত্রে নাম থাকা শিক্ষকরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকাতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তবিউর রহমান প্রধান, বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক পরিমল চন্দ্র বর্মন, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের প্রভাষক শামীম হোসেন, ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের প্রভাষক সোহাগ আলী, মার্কেটিং বিভাগের সহাকারি প্রক্টর ও সহকারী অধ্যাপক মাহামুদুল হাসান, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের রাম প্রসাদ বর্মণ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বাসক রহমতুল্লাহ, একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কাইয়ুম ও পিএস আমিনুর রহমান। এছাড়া আরো ৮/৯ জনকে অজ্ঞাত করে অভিযোগ দায়ের করা হয়।


এদিকে অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, গত ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীনতা স্মৃতিস্তম্ভের সামনে একটি বিকৃত জাতীয় পতাকা প্রদর্শন করা হয়েছে। ওই পতাকায় সবুজের মধ্যে লাল অংশ গোলাকার না করে বিকৃতি করে আয়তকার করা হয়। এছাড়া পতাকাটি নিম্নমুখী করে শিক্ষকেরা পায়ের নিচে ফেলেন। বিষয়টি ফেসবুকে পোস্ট দিলে পরদিন ১৭ ডিসেম্বর সবার দৃষ্টি গোচর হয়। এছাড়া ওই সব শিক্ষক স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞানে জাতীয় পতাকার বিধি মামলার ব্যতয় ঘটিয়েছেন।

ওই ঘটনায় নিজেদের অপরাধ বোধের স্বীকারোক্তি দিয়ে ফেসবুক পোস্ট দিয়েছেন শিক্ষক তাবিউর রহমান প্রধান।

এবিষয়ে তাজহাট হাট থানার ওসি তদন্ত রবিউল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে জাতীয় পতাকা অবমাননার ঘটনাযর প্রতিবাদ জানিয়ে বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগ ও মহানগর যুবলীগ। এমন ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের সংগঠন অধিকার সুরক্ষা পরিষদ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থী ও প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দ প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

সমাবেশ থেকে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, মহান বিজয় দিবস দায়সারাভাবে পালন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। দিবসটি উপলক্ষে ক্যাম্পাসে আলোকসজ্জা করা হয়নি। এমন দিনেও ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। এর আগে গত ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসেও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধা জানায়নি প্রশাসন। সেদিনেও ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত ছিলেন উপাচার্য। এর ভিতরে ভিসিপন্থী হিসেবে পরিচিত শিক্ষকেরা জাতীয় পতাকা অবমাননা করে তা সামাজিক মাধ্যমে প্রদর্শন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছে।


পুরোনো সংবাদ

হাইলাইটস 8611623739912743381

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item