তেঁতুলিয়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন


মুুহম্মদ তরিকুল ইসলাম ঃ
পঞ্চগড় জেলাধীন তেঁতুলিয়া উপজেলায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন শুরু করছে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক প্রেমিকা। সংবাদ পেয়ে প্রেমিক রুবেল ও তার পরিবার বাড়ির বাহিরের দরজা বন্ধ রেখে প্রেমিকাকে রাস্তায় দাড় করিয়ে রাখেন। রুবেল উপজেলার ৭নং দেবনগড় ইউপিথর খল্টাপাড়া গ্রামের সফিজুল ইসলামের ছেলে এবং প্রেমিকা ওই একই উপজেলার একই ইউপিথর বাসিন্দা ও বেগম খালেদা জিয়া দ্বি-মূখী বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী। 

 স্থানীয়দের মধ্যে নাম বলতে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, রুবেল ইতোপূর্বে আরও এ ধরণের ঘটনার সম্মুখীন হয়েছিল। তার ঘরে ঢোকার জন্য আরও বেশ কয়েকটি মেয়ে তাকিয়ে আছেন।

  এ বিষয়ে অনশনরত প্রেমিকা জানায়, দুই বছর আগে প্রেমিক রুবেলের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমিকা বেশ কিছুদিন ধরে প্রেমিক রুবেলকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে সে বিয়ে করবে বলে এড়িয়ে যায়। 

এক পর্যায়ে প্রেমিকা জানতে পারে রুবেল তাকে বিয়ের কথা বলে পার্শ^বর্তী এলাকায় বিয়ের জন্য মেয়ে খুজে বেড়াচ্ছেন। এই সংবাদ পেয়ে ১অক্টোবর/২০২০ বৃহস্পতিবার সকালে প্রেমিক রুবেলের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করছে প্রেমিকা। প্রেমিকা আরোও জানান, সে প্রেমিকের বাড়িতে যাওয়ার খবর পাওয়া মাত্রই প্রেমিকের পরিবার তাকে বাহিরে পাকা রাস্তায় দাড় করিয়ে রাখেন। এতে এলাকায় বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে লোকজন তাকে সারি বদ্ধ হয়ে দেখতে আসেন। অত:পর সে আর লজ্জা সহ্য করতে না পেরে পাশে থাকা বাঁশের গাঁট টপকিয়ে বাড়ির বাহিরের গেটের ভিতরে প্রবেশ করেন।  

প্রেমিকার পিতা-মাতা বাসায় না থাকায় তার চাচি জানান, মেয়ের নানীর বাড়ি ছেলের বাড়ির পাশাপাশি। সেই সুবাদে হয়তো বা তাদের প্রেম হয়েছে। এতে মেয়ের পরিবার কেউ তাদের প্রেমের বিষয়ে অবগত ছিলনা। তবে কয়েকদিন আগে তাদের মেয়েকে রুবেল হিমালয় পার্কসহ বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে নিয়ে গেলে পরিবার বিষয়টি জানতে পারেন। প্রেমিকার চাচতো বোন ও তার চাচি আরও জানান, রুবেল বেশ কয়েকটি পোশাকের সেট কয়েকদিন হল তাকে দিয়েছেন। রুবেল নামীয় ছেলেটির যত গুলো মোবাইল নম্বর রয়েছে সকল নম্বর দিয়ে তার প্রেমিকার সঙ্গে মুঠোফনে ফোন দিয়ে আলাপন করেন। প্রেমিকার চাচি আরও জানান, মেয়েকে স্বীকৃতি না দিয়ে রুবেলের বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিতে ভয় ভীতি দেখানো হচ্ছে। তার ভাতিজির সঙ্গে ২বছর প্রেম করে ছেলে অন্য জায়গায় বিয়ে করবে তা মেনে নিবেনা। প্রেমিকাকে ছেলের বাড়িতে প্রবেশ করতে না দেয়া এবং ভয়ভীতি দেখিয়ে তাড়িয়ে দেয়ার বিষয়ে জানতে পারলে নিকস্থ এক আত্মীয়কে অবগত করেন জানান তিনি। 

বিষয়টি নিয়ে দেবনগড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মহসিন-উল হক মহসিনকে দুপুর ২:৪৫ঘটিকায় মুঠোফোনে ফোনদিলে তিনি বিষয়টি অবগত হয়েছেন জানান। 

এব্যাপারে তেঁতুলিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরুল ইসলাম জানান, এখন পর্যন্ত তিনি এ বিষয়ে অবগত নয়। তিনি বলেন, তার কাছে মেয়ে পক্ষে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।    

 


পুরোনো সংবাদ

পঞ্চগড় 1238413246686870094

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item