দেবীগঞ্জে অবৈধ বালির পয়েন্টে চলছে ড্রেজার মেশিনে বালি উত্তোলন,


সাইদুজ্জামান রেজা, পঞ্চগড়ঃ  

পঞ্চগড়ের মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবি ড্রেজার মেশিন বন্ধ করতে হবে, দীর্ঘ আন্দোলনের পর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ড্রিল ড্রেজার মেশিন যখন পুরোপুরি বন্ধ ঠিক তখনই পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায়  ড্রেজার মেশিন দিয়ে করতোয়া নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালি উত্তোলনের কারনে নদী ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। সম্প্রতি জেলার প্রায় সব ক'টি নদী খনন করে নদীগুলোতে যখন নাব্যতা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে তখনই দুর্বৃত্তরা নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে নদীর নাব্যতা নষ্ট করছে। সরকারের শত শত কোটি টাকা বিফলে যাচ্ছে। ড্রেজার মেশিন ব্যবহারের ফলে উত্তরবঙ্গের আবহাওয়ায় ইতোমধ্যে পরিবর্তন দেখা গেছে। ড্রেজার মেশিনের ফলে নদীর তীরে থাকা ফসলি জমিসহ ভিটে মাটি বিলীন হয়ে যাচ্ছে। ফসলি জমি রক্ষার্থে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলন বন্ধের দাবি করেছে এলাকাবাসী, কিন্তু কে শুনে কার কথা, যারা এসবের সাথে জড়িত তারাই সমাজের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, তাদের সাথে উঠা বসা রয়েছে উপজেলা প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিদের সাথে।

দেবীগঞ্জ উপজেলায় শাল ডাঙ্গা ইউনিয়নে ধুলা ঝাড়ি, সোনা পাতা করতোয়া নদী থেকে প্রশাসনের কোন অনুমতি বা ইজারা না নিয়েই অবৈধ্য ভাবে বালি উত্তোলন করছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল। দেশের সার্বিক ক্ষতি করছে আর রাজস্ব ও হারাচ্ছে সরকার।

উপজেলা প্রশাসনের নাকের ডগায় কয়েকটি স্থানে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালি উত্তোলন করা হলেও যেন দেখার কেউ নেই। দীর্ঘদিন ধরে এভাবে বালি উত্তোলন করা হলেও বন্ধের কোনো উদ্দোগ নেয়নি উপজেলা প্রশাসন।

এ ব্যাপারে দেবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রত্যয় হাসান জানান, ড্রেজার মেশিন দিয়ে নদী খনন করা হচ্ছে। যদি কেউ এ বিষয়ে অভিযোগ করে তাহলে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দেবীগঞ্জ উপজেলার ধুলাঝাড়ি,করতোয়া ব্রিজের দক্ষিণ পার্শ্বে, ময়নামতির চর, দেবীডুবা ইউনিয়নের পাখুড়ি তলাও তেলী পাড়া এলাকায় করতোয়া নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে দিনরাত ২৪ ঘন্টা বালি উত্তোলন চলছে। বালি উত্তোলনের পর বিক্রির জন্য ট্রাক্টর যোগে পরিবহনের ফলে এলাকার রাস্তাঘাট চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বালি উত্তোলনের ফলে এলাকার বেশ কিছু আবাদি জমি ও বসতভিটে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা।

দেবীগঞ্জ বালুমহলের ইজারাদার রফিকুল খান জানান ধুলাঝাড়ি, পাখুড়ি তলা, তেলীপাড়ায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলন করছে, তাই আমি ও ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলন করছি। 

বালি উত্তোলনের স্থান চিহ্নিত থাকলেও  জেলা প্রশাসন কতৃক জল মহাল দাগ নির্ধারিত থাকলে ও অনির্ধারিত স্থান হইতে বালি উত্তোলন করায় মালিকানাধীন জমির অংশগুলো ভেঙ্গে যাচ্ছে। শীঘ্রই অবৈধ বালি উত্তোলনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

পুরোনো সংবাদ

পঞ্চগড় 326040547726295034

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item