ভুট্টার খড়ির আগুনে পুড়ল বিধবা দেলজোনের শেষ আশ্রয়স্থল

কিশোরগঞ্জ(নীলফামারী)সংবাদদাতাঃ
এক বছর আগে স্বামীকে হারিয়েছেন দেলজোন বেওয়া। শত অভাবের মধ্যে  একমাত্র ছেলে দিলীপকে নিয়ে চলছিল বেঁচে থাকার লড়াই। কিন্তু মাত্র ১৫ মিনিটের  আগুনে  দেলজোনের থাকার ঘরটিসহ তিনটি ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এমনকি পুরে গেছে স্বামীর শেষ চিহ্নটুকু। 
শুক্রবার  বিকাল সারে চারটারদিকে ভুট্টার খড়ি দিয়ে রান্না করার সময়  নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের ইসমাইল গ্রামের মৃত ইয়াছিন আলীর স্ত্রী দেলজোন বেওয়ায় থাকার ঘরসহ তিনটি ঘর ও ঘরে রক্ষিত মালামাল আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। 
কিশোরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার রেদওয়ানুজ্জামান জানান, কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ইসমাইল গ্রামে আগুন লেগেছে এ ধরনের খবর পেয়ে খুব দ্রুত আগুন নেভাতে কিশোরগঞ্জ ফায়ায় সার্ভিসের একটি ইউনিট সেখানে যায়। কিন্তু ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি যাওয়ার আগেই বিধবা দেলজোনের একমাত্র থাকার ঘরটিসহ তিনটি ঘর আগুনে পুড়ে গেছে। তিনি আরো জানান, ভুট্টার খড়ি দিয়ে রান্না করার সময় অগ্নিকান্ডের সুচনা হয়। 
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবু হাসনাত সরকারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমি খবর পেয়েছি। ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে প্রাথমিকভাবে চাল ডাল ও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করতে বলেছি। বিধবার একমাত্র আশ্রয়স্থল আগুনে পুড়ে যাওয়ার কারনে আগামীকালের মধ্যে তাঁকে সরকারীভাবে ত্রাণের টিন দিয়ে থাকার ব্যবস্থা করব।  

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 7977677038261516557

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item