পার্বতীপুরে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষনের চেষ্টা॥ গ্রেপ্তার-১

এম এ আলম বাবলু,পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুরের পার্বতীপুর পৌরসভার ধুপিপাড়ার (পশ্চিম নিউ কলোনী) পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী মোছাঃ মনিজা খাতুন (১১) কে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্ট৷র অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার অন্যতম আসামী বিলকিস বেগম (২৯) কে রেলওয়ে থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে৷ 
জানা যায় ১৫ জুন রাত ৮ টার সময় বিলকিস বেগম (২৯) সুকৌশলে মনিজা খাতুন কে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় এবং মনিজাকে বলা হয় পাশের রুম থেকে তার মোবাইল ফোনটি নিয়ে আসতে। মনিজা মোবাইল ফোনটি আনতে গেলে আগে থেকেই সেখানে ওত পেতে থাকা মোঃ আরিফ (৩২) তাকে জরিয়ে ধরে তাকে ধর্ষণের জন্য তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে৷ এ সময়  বিলকিস বাহির থেকে দরজা আটকিয়ে দেয় যাতে মনিজা বের হতে না পারে। মনিজা নিজের ইজ্জত বাঁচাতে চিৎকার শুরু করলে  তার দুলাভাই তার চিৎকার শুনে দৌঁড়ে এসে বিলকিসের বাসা থেকে মজিনাকে বিবস্ত্র বাস্তবতায় উদ্ধার করে৷ তখন আরিফ মনিজার দুলাভাইকে দেখে উলঙ্গ অবস্থায় পালিয়ে যায়। মজিনাকে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে তার গলায় থাকা ৬ আনা পরিমানের স্বর্নের চেনটি হারিয়ে যায়। ঘটনার পরে পার্বতীপুর পৌরসভার  ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলার কে বিষয়টি অবগত করা হয়৷  পরে মনিজার পরিবার হ্যালো পার্বতীপুর ও হেল্পিং সেন্টার এর সাহায্যে  উপযুক্ত বিচারের দাবিতে পার্বতীপুর রেলওয়ে থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করে৷ মনিজার বড় বোন পারভীনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২০ জুন রাতে রেলওয়ে থানার আরিফ ও বিলকিস কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়৷ একই রাতে রেলওয়ে থানা পুলিশ বিলকিস কে গ্রেপ্তার করে৷ 
পার্বতীপুর পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ভের কাউন্সিলার মঞ্জুরুল হক মঞ্জুর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,ঘটনাটি আমাকে বলা হয়েছে এবং আমি তাদের কে আইনী ব্যবস্হা গ্রহনের পরামর্শ দিয়েছি৷ এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে রেলওয়ে থানার ওসি  মোঃ এমদাদুল হক  বলেন,মনিজার বড় বোন  পারভীনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুই জন কে আসামী করে থানায় মানলা দায়ের করা হয়েছে এবং এই মামলার অাসামী বিলকিস কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷

পুরোনো সংবাদ

দিনাজপুর 8047024167782134329

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item