নীলফামারীতে করোনা পজেটিভ কৃষি অফিসের গাড়ীচালক লাপাত্তা


বিশেষ প্রতিনিধি\
নীলফামারী পৌর শহরের করোনাভাইরাস পজেটিভ এক ব্যক্তি নিজ বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছেন। পলাতক ব্যাক্তি নীলফামারী জেলার কৃষি সম্প্রসারনের খামারবাড়ির উপ পরিচালকের সরকারি গাড়ী চালক মানিক মিয়া(৪৩)।
আজ মঙ্গলবার সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ রাশেবুল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পিসিআর ল্যাবে ওই ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। যার রির্পোট গতকাল সোমবার রাতে পাওয়া যায়।
নিয়ম অনুযায়ী করোনা পজেটিভ রোগীকে জেলা সদরের জেনারেল হাসপাতালের আইশলেসন ওয়াডে নিরাপদে রেখে চিকিৎসার জন্য রাতেই উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য কর্মী ও পুলিশ তার স্টেশন রোডের (গাছবাড়ি) বাড়িতে যায়। কিন্তু তাকে তার বাড়িতে পাওয়া যায়নি এবং তার মোবাইল বন্ধ রয়েছে। তিনি বলেন বিষয়টি আমি উপজেলা প্রশাসন,সদর থানা ও পৌরসভার মেয়রকে লিখিত ভাবে অবগত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অনুরোধ করেছি।
নীলফামারী সদর থানার ওসি মোমিনুল ইসলাম জানান, করোনা পজেটিভ গাড়ীচালক মানিকের স্ত্রী জানায় তার স্বামী বাড়িতে নেই। কোথায় গেছে বলতে পারেনা। তিনি বলেন গতকাল সোমবার সারা রাত ও আজ মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ওই রোগীর কোন সন্ধ্যান পাওয়া যায়নি। রোগীর মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। ফলে তার লোকেশন চিহিৃত করা সম্ভব হচ্ছেনা। ওসি জানান আমরা তার স্ত্রীকে বলেছি আপনার স্বামীকে চিকিৎসার জন্য দ্রæত হাসপাতালে ভর্তি করাতে হবে। তার স্ত্রী বলেছেন তিনি চেষ্টা করছেন তার স্বামীকে খুঁজে বের করতে। 
নীলফামারী খামারবাড়ির উপ পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) ওবায়দুর রহমান মন্ডল জানান,আমার অফিসের গাড়ী চালক মানিক মিয়া ও অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) সিরাজুল ইসলামের করোনা উপসর্গ দেখা দিলে তাদের নমুনা সংগ্রহের পর তাদের ১০ জুন থেকে ছুটি দেয়া হয়। গতকাল সোমবার সন্ধ্যার পর স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষে জানানো হয় আমার অফিসের দুইজনের করোনা পজেটিভ। তিনি বলেন এরপর আমি গাড়ীচালক মানিক মিয়ার সঙ্গে কথা বলি। সে (গাড়ীচালক) নিজবাড়িতেই আছে বলে জানায়। এরপর রাত ৯টার দিকে গাড়ী চালকের স্ত্রী ফোন দিয়ে জানায় তাদের বাড়িতে প্রশাসন ও পুলিশ এসেছে মানিককে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য। কিন্তু তার স্বামী বাড়িতে নেই মোবাইল বন্ধ করে কোথায় বের হয়ে গেছে তারা বলতে পারেনা। তিনি বলেন আমরাও চেস্টা করছি গাড়ীচালক মানিকের অবস্থান জানতে। তিনি আরো জানান আমার অফিসের করোনা পজেটিভ অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) সিরাজুল ইসলাম বর্তমানে রংপুর শহরের নিজবাড়িতে আইশলেসনে রয়েছে।#

পুরোনো সংবাদ

হাইলাইটস 3951200099911517524

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item