করোনা মোকাবেলায় মানবিক এক কৃষি কর্মকর্তা অরুন রায়

মর্তুজা ইসলাম, জলঢাকা প্রতিনিধিঃ

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস দেশে সংক্রমণের শুরু থেকে এর প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধে দিন-রাত নিরলসভাবে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন মানবিক এক কৃষি কর্মকর্তা অরুন চন্দ্র রায়। নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার বগুলাগাড়ীর বাসিন্দা অরুন রায় চাকুরী করেন নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে। করোনা মোকাবেলায় মহাদেবপুর উপজেলার সমন্বয়কারীর দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। এজন্য করোনা আক্রান্ত লকডাউন এলাকাগুলোতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে খাদ্যসামগ্রী বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিয়েছেন তিনি। প্রায় প্রতিদিনই উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের পাশে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির হয়েছেন তিনি।  সঠিকভাবে বিতরণের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগীতা নিয়েছেন, তুলে দিয়েছেন দুঃস্থ অসহায় কর্মহীনদের হাতে খাবার। "মানবতার ঘর" এর উপজেলা ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তা হিসেবে খাবারের ব্যবস্থা করেছেন মধ্যবিত্ত পরিবারের। পাশাপাশি উপজেলার কোনো অসহায় মানুষ নির্দিষ্ট নম্বরে কল দিলে নিজেই অথবা বিভিন্ন দপ্তরের কর্মচারীদের সমন্বয়ে গঠিত কুইক রেসপন্স টিমের মাধ্যেমে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন তিনি।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কোন জমি যেন চাষাবাদের বাইরে না থাকে সেজন্য ব্যাক্তি উদ্দ্যোগে ৬ শত ৫০ পরিবারের মাঝে শবজি বীজ বিতরন করেছেন। উপজেলার মানুষকে করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষার জন্য সচেতনতা লিফলেট বিতরন, খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরন সহ নানাবিধ কর্মকাণ্ডে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন তিনি। এবিষয়ে কৃষি অফিসার অরুন রায় বলেন, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের লক্ষে উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামগুলোতে সাধারন মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য কাজ করছি, বারবার সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার কথা বলছি, অতি
প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে বের না হওয়ার জন্য জনসাধারনকে সচেতন করে চলেছি। একাজে উপজেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও কৃষি অফিসের সকল কর্মকর্তা কর্মচারির সহযোগীতা পেয়েছি।

পুরোনো সংবাদ

নির্বাচিত 4412022668268056585

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

ফেকবুক পেজ

কৃষিকথা

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item