সৈয়দপুরে ছেলের বিরুদ্ধে বৃদ্ধা মাকে নির্যাতন করে বাড়ি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে


তোফাজ্জল হোসন লুতু, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:
 নীলফামারীর সৈয়দপুরে শহরে এক ছেলের বিরুদ্ধে ৭৫ বছর বয়সী বৃদ্ধা মাকে নির্যাতন করে নিজ বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে বাড়ি জবর দখলের অভিযোগ করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বৃদ্ধা সাফতারা বেগম সংবাদ সম্মেলনে ছেলে খালেদ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ করেন। শহরের শেরে বাংলা সড়কস্থ সৈয়দপুর প্লাজায় একটি হোটেলে সম্মেলনে বৃদ্ধা সাফতারা বেগমের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তাঁর এক ছোট ছেলে রাশেদ সিদ্দিকী ।
 লিখিত বক্তব্য বলা হয়, বৃদ্ধা সাফতারা বেগমের স্বামী প্রয়াত মঈন সিদ্দিকী এবং তার নামে  সৈয়দপুর শহরের মুন্সিপাড়ায় একটি বাড়ি, মঈন মার্কেট এবং ২৪ শতক জমি রয়েছে। ১৯৯৩ সালে তারা স্বামী স্ত্রী মিলে তাদের তিন ছেলে রাশেদ সিদ্দিকী, খালেদ সিদ্দিকী ও তারিক সিদ্দিকীর নামে কোন বিনিময় ছাড়াই হেবা দলিল (দানপত্র) করেন। সে সময় হেবা দলিল দেওয়া হলেও তাদেরকে দখল দেওয়া হয়নি। তবে শর্ত ছিল মৃত্যুর পর তাদের ঔরশজাত সব ছেলে মেয়ে স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের তুল্লাংশে মালিক হবেন। কিন্তু তার চতুর্থ ছেলে খালেদ সিদ্দিকী চলতি ২০২০ সালে ফেব্রæয়ারি মাসে হেবা দলিল সূত্র ধরে অত্যন্ত গোপনে তার অংশ নিজ নামে খারিজ করে নেয়। পরে বিষয়টি ফাঁস হলে এ নিয়ে মায়ের সঙ্গে ছেলে খালেদ সিদ্দিকী ও তার স্ত্রী সিমা সিদ্দিকী ঝগড়া-বিবাদে জড়িয়ে পড়েন। এমনকি মায়ের ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু করেন তারা। এ নিয়ে মাসহ তার অন্য ছেলে রাশেদ সিদ্দিকীর উদ্যোগে নিজ বাড়িতে গত ২৯ মে সালিসি বৈঠক হয়। বৈঠকে ছেলের অপকর্ম তুলে ধরলে ছেলে খালেদ সিদ্দিকী ওই সালিস বৈঠকে মাকে নির্যাতন করে। এ অবস্থায় মা সাফতারা বেগম তৎক্ষণাৎ মৌখিকভাবে ত্যাজ্য পুত্র ঘোষণা করেন ছেলে খালেদ সিদ্দিকীকে। এ ঘটনার পর ছেলে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে মায়ের ওপর চরম নির্যাতন চালিয়ে মাকে নতুন বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এ অবস্থায় বৃদ্ধা তাঁর স্বামীর মুন্সিপাড়াস্থ পুরাতন বাড়িতে আশ্রয় নেন। তিনি এ ঘটনার সুবিচার দাবি করে বেদখল হওয়া বাড়ি উদ্ধারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। একই সঙ্গে সাফতারা বেগম ঘোষণা করেন যে, আমার স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ আমি আমার প্রয়োজনে যে কারও নামে হস্তান্তর করবেন। এক্ষেত্রে আমার কোন উত্তরসুরী কোনভাবে ওজর আপত্তি করতে পারবে না। তবে যদি কেউ করে তা সর্বাদালতে ও সর্বস্থানে অগ্রাহ্য হবে।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বৃদ্ধার  ছোট ছেলে রাশেদ সিদ্দিকী ও পুত্রবধূ নাগমা সিদ্দিকী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন 

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 2479269397964495814

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item