পাগলাপীরে করোনা আক্রান্তের আশঙ্কায় একটি পরিবার লক ডাউনে


পাগলাপীর প্রতিনিধি ঃ রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর হরিদেবপুর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের গোকুলপুর চেরকাপাড়া গ্রামে মোঃ আব্দুল জলিল নামে মুদীর দোকানদারের বাসায় স্বামী স্ত্রী ও আড়াই বছরের শিশু ৩ সদস্যের একটি ভাড়াটিয়া পরিবারকে করোনা ভাইসাসের আক্রান্তের আশঙ্কায় লক ডাউনে রাখা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ৩০ শে এপ্রিল রাত সাড়ে ৮টায় সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদিয়া সুমি ওই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথাবার্তা বলে চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে ভাড়াটিয়া পরিবারটিকে ১৪ দিন বাসার বাড়িরে বন্ধ সহ নানা নির্দেশনা দেন। এ সময় কোতয়ালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ এবিএম সাজেদুল ইসলাম, চিকিৎসক টিম, স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ সহ গ্রামবাসীরা উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে এ ঘটনার পর অত্র ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন এবং সেনাবাহিনী, পুলিশ সহ করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সংশ্লিষ্ট মহল পরিবারটির খোজ খবর নেন। জানাগেছে পাগলাপীরের চেরকাপাড়া গ্রামের মুদি দোকানদার আব্দুল জলিলের বাসায় জনৈক্য ভাড়াটিয়া রংপুর নবাবগঞ্জ বাজার শাখা সোনালী ব্যাংকের একজন সিনিয়র অফিসার। দেড় সপ্তাহ প‚র্বে উক্ত সোনালী ব্যাংকে ৭ জন কর্মকর্তা কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়েন। এ ঘটনার পর ব্যাংকার জনৈক্য ভাড়াটিয়া ও তার আড়াই বছরের শিশুপুত্র জ্বর, সর্দিতে ভুগলে করোনা আক্রান্তে আশাংকায় পরিবারটি নিজেকে এক ঘর করে সকলের আড়ালে রংপুর শহরের জনৈক্য চিকিৎসকের কাছে রক্ত পরীক্ষা চালান। সেখানে চিকিৎসকের আশাংকা জনক কথা বার্তায় সোসাল মিডিয়ার মাধ্যমে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে করোনা ভাইরাসের আতঙ্কের খরবটি। বর্তমানে পরিবারটি সকল সদস্যবৃন্দরা গত ৩ দিন ধরে সুস্থ সুন্দর থাকলেও গ্রামের মানুষজন সহ দেশকে সুস্থ সুন্দর রাখতে তারা লক ডাউন মেনে চলছেন। 

পুরোনো সংবাদ

হাইলাইটস 8989040975384965580

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item