চিলাহাটি থেকে কৃষিপণ্যবাহী পার্সেল ট্রেনের যাত্রা শুরু


নীলফামারী প্রতিনিধি: বিভিন্ন কৃষিপণ্য পরিবহণের জন্য নীলফামারী থেকে যাত্রা শুরু করেছে স্পেশাল  পার্সেল ট্রেন। আজ শুক্রবার সকাল ৯টায় জেলার চিলাহাটি রেলস্টেশন থেকে খুলনা পর্যন্ত বিশেষ পার্সেল ট্রেন যাত্রা শুরু করে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে বন্ধ রয়েছে রেলওয়ে পরিবহন সেবা। এ অবস্থায় চিলাহাটি- খুলনা-চিলাহাটি রেলপথে একজোড়া বিশেষ পার্সেল সার্ভিস কৃষকের উৎপাদিত কাচামাল পরিবহনে যুগান্তকারী পদক্ষেপে গ্রহন করায় কৃষক ও ব্যবসায়ীরা প্রধানমন্ত্রী সহ রেলকর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। এটি আরো অনেক আগে চালু করলে ভাল হতো বলে জানান নীলফামারী চেম্বারের সভাপতি মারুফ জামান। তিনি বলেন বিশেষ পার্সেল ট্রেনটি প্রতিদিন উভয় দিক থেকে চালু রাখলে ব্যবসায়ীরা বেশী উপকৃত হতো।

প্রথম দিন আজ শুক্রবার চিলাহাটি রেলস্টেশন হতে ১০০ কেজি ওজনের ২৮ বস্তা কাচামরিচ, ৫০ কেজি ওজনের ১০ বস্তা সুপারী ও ৩০ কেজি ওজনের ৬ ক্যারেজ টমেটো, ডোমার স্টেশন হতে ৭০ কেজি ওজনের ৩৮ বস্তা কাচামরিচ ও বাঁশের ধারা একবান্ডিল, নীলফামারী রেলস্টেশন হতে ৭০ কেজি ওজনের ৫বস্তা কাচামরিচ, ১০০ কেজি ওজনের দুই বস্তা আদা, পোনা মাছের ড্রাম ১০টি ও এক পরিবারের আসবাবপত্র, সৈয়দপুর রেলস্টেশন হতে ৭০ কেজি ওজনের ২৮ বস্তা কাচামরিচ ও ৩০ বস্তা বাইবাইকেলের নতুন যন্ত্রপাতি। এ সকল পন্য নীলফামারী জেলার চারটি রেলষ্টেশন থেকে খুলনা,দৌলতপুর,যশোর, ঈশ্বরদী, দর্শনা হল্ট ও চুয়াডাঙ্গা যাচ্ছে।

পশ্চিমাঞ্চল রেলের সহকারী চীফ অপারেটিং সুপারিন্টেন্ডেন্ট (পি) আব্দুল আওয়াল জানানপার্সেল ট্রেনটি গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় খুলনা স্টেশন থেকে চিলাহাটি গিয়ে পৌছে রাত রাত ৮টা ৪০ মিনিটে। আজ শুক্রবার সকাল ৯টায় চিলাহাটি থেকে কৃষি পন্য সহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে খুলনা অভিমুখে ছেড়ে এসেছে। এটি খুলনায় রাত সাড়ে আটটায় এসে পৌছবে। পণ্যবাহী বিশেষ এই ট্রেনটি উভয় পথে ডোমার-নীলফামারী-সৈয়দপুর-পার্বতীপুর-ফুলবাড়ী-বিরামপুর-পাঁচবিবি-জয়পুরহাট-জামালগঞ্জ-আক্কেলপুর-তিলকপুর-সান্তাহার-আহসানগঞ্জ-নলডাঙ্গারহাট-নাটোর-আব্দুলপুর-ঈশ্বরদী-ভেড়ামারা-পোড়াদহ-আলমডাঙ্গা-চুয়াডাঙ্গা-দর্শনাহল্ট-আনসারবাড়িয়া-সাফদারপুর-কোট চাঁদপুর-যশোর- নওয়াপাড়া- দৌলতপুর ও খুলনা থামবে। এ ছাড়া যে সকল স্টেশনে বিশেষ পার্সেল ট্রেনটি দাঁড়ানোর কথা নয় সে সকল স্টেশনে যদি পরিবহনের জন্য কৃষিপণ্য থাকে তাহলে ওই রেলষ্টেশন মাষ্টার আগাম জানিয়ে রাখলে ট্রেনটি সেখানে থেমে কৃষিপণ্য তুলে নেবে।

তিনি বলেন নির্দিষ্ট গন্তব্যে খাদ্যসহ জরুরি পণ্য পৌঁছে দিতে রেলের এই পার্সেল ট্রেন একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। প্রথমবারের মতো খুলনা-চিলাহাটি-খুলনা রুটে এ ধরনের পরিবহন ট্রেন চালু হল। ট্রেনটি রয়েছে পাঁচটি লাগেজ ভ্যান ও একটি ব্রেকভ্যান। চাহিদা থাকলে আরো লাগেজভ্যান সংযুক্ত করা হবে। সপ্তাহে ট্রেনটি খুলনা থেকে শনিবার ও চিলাহাটি থেকে রবিবার বন্ধ থাকবে। বাকি দিনগুলোতে স্বাভাবিক সেবা পাবে এ অঞ্চলের ব্যবসায়ী ও কৃষকেরা । তবে ট্রেনটিতে কোনো যাত্রী পরিবহন করা হবেনা বলে জানান তিনি

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 7576635267618244290

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item